, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

ইলিশ রক্ষা অভিযানে জেলেদের হামলা, ২ পুলিশসহ আহত ৫

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

ইলিশ রক্ষা অভিযানে জেলেদের হামলা, ২ পুলিশসহ আহত ৫

ইলিশ রক্ষার অভিযানে গিয়ে জেলেদের অতর্কিত হামলায় দুই পুলিশ সদস্যসহ অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। শনিবার (৯ অক্টোবর) বিকেল ৫টায় শরীয়তপুর জেলার মেঘনা নদীর কাচিকাটা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- জেলার সখিপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুস্তাফিজুর রহমান (৪৭), পুলিশ সদস্য মিরাজ (৩৫), ট্রলারচালক জাহাঙ্গীর সরকার (৩৫), গ্রামপুলিশ ওমর আলী (৫০) ও স্পিডবোটের মালিক ছিডু সরকার (৩৫)। গুরুতর আহতদের চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্ত করা হয়েছে।

সখিপুর থানার কনস্টেবল কাওছার তালুকদার বলেন, ‘আমরা একটি স্পিডবোট ও একটি ট্রলার নিয়ে ইলিশ রক্ষার অভিযানে নামি। কিছু বুঝে ওঠার আগেই জেলেদের স্পিডবোট আমাদের স্পিডবোটের ওপর উঠিয়ে দেয়। এতে স্পিডবোটে থাকা সবাই আহত হন। এক পর্যায়ে জেলেদের প্রায় চল্লিশটি ট্রলার চারপাশ থেকে আমাদের ঘিরে ফেলে।’

Chandpur-(2).jpg

সখিপুর থানার এসআই আহত মোস্তাফিজুর রহমান জানান, শনিবার বিকেলে তারা শরীয়তপুর মৎস্য অফিসার নজরুল ইসলাম, মৎস্য কর্মচারী ও কয়েকজন পুলিশ সদস্যসহ সাতজনের একটি দল একটি স্পিডবোট ও একটি ট্রলার নিয়ে ইলিশ রক্ষা অভিযানে নামে।

তারা মেঘনা নদীর কাচিকাটা নামক স্থানে গেলে দূর থেকে জেলেদের ৩০ থেকে ৪০ জনের একটি সংঘবদ্ধ একটি দল তাদের ওপর হামলা করে। এসময় পুলিশ সদস্যদের স্পিডবোটটি পুরো উল্টে যায়। এছাড়াও ট্রলারে থাকা জেলেরা বাঁশ, লাঠিসোটা ও বৈঠা দিয়ে তাদের এলোপাতাড়ি আঘাত করে।

জানা গেছে, আহতদের মধ্যে ট্রলারচালক জাহাঙ্গীরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহত এসআই মোস্তাফিজুর রহমান ও গ্রামপুলিশ ওমর আলীকে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকিদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

  • সর্বশেষ - আলোচিত খবর