, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

৩ ছিনতাইকারী আটক করে পুরস্কৃত হলেন গ্রাম পুলিশ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

৩ ছিনতাইকারী আটক করে পুরস্কৃত হলেন গ্রাম পুলিশ

ময়মনসিংহের ফুলপুরে তিন ছিনতাইকারীকে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করায় পুরস্কৃত হয়েছেন শুক লাল নামের এক গ্রাম পুলিশ।

রোববার (১০ অক্টোবর) বিকেলে ফুলপুর থানা কার্যালয়ে পুরস্কারের একটি খাম তার হাতে তুলে দেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন।

গ্রাম পুলিশ শুক লাল রহিমগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদে কর্মরত। তিনি বাসুয়া কবিরপুর গ্রামের মৃত কাঙালি রাজভরের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রিয়াদ নামে এক অটোরিকশাচালক ফুলপুর পৌর এলাকার দিউ মোড়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। পরে তিন ছিনতাইকারী যাত্রীবেশে রিয়াদকে উপজেলার বালিয়া যাওয়ার কথা বলে অটোরিকশা ভাড়া নেয়। সেখান থেকে রাত ১০টার দিকে রূপসী বাজারের কাছে ফাঁকা জায়গায় যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একটি মোটরসাইকেল দিয়ে আরও দুজন অটোরিকশার গতি রোধ করে।

এ সময় চালক রিয়াদের কাছ থেকে অটোরিকশা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন তারা। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে রিয়াদকে ছুরিকাঘাত করে অটোরিকশাটি ছিনতাই করে পালিয়ে যান।

বিষয়টি জানাজানি হলে ছিনতাইকারীদের আটকের জন্য বিভিন্ন ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ বাজারে গ্রাম পুলিশ ও নৈশপ্রহরীসহ বিভিন্ন লোকের নজরদারি বাড়ানো হয়। রাত দেড়টার দিকে রহিমগঞ্জ ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ শুক লাল ও স্থানীয় ইউপি সদস্য রিপন মিয়া সন্দেহজনকভাবে একটি অটোরিকশা আটকান।

জিজ্ঞাসাবাদ করতেই অটোর পেছনে থাকা মোটরসাইকেল যাত্রী দুজন দৌড় দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে অটোতে থাকা তিনজনকে তারা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

গ্রেফতার তিন ছিনতাইকারী হলেন- বাগেরহাট সদর উপজেলার টাগরাঘাট গ্রামের জবেদ আলীর ছেলে তরিকুজ্জামান (২৪), ফুলপুর উপজেলার ঢাকিরকান্দা গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে বাবু মিয়া (২০) ও রহিমগঞ্জ ইউনিয়নের মাটিচাপুর গ্রামের মৃত নুরুল হকের ছেলে মো. রাসেল (৩০)।

ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, শুক্রবার রাতে অটোরিকশাচালককে ছুরিকাঘাত করে ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় তিন ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে শুক লাল। তাই তাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ - ময়মনসিংহ অঞ্চল