, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

নারী ঘরের পোশাক পরে নামাজ পড়লে হবে কি?

  ধর্ম ডেস্ক

  প্রকাশ : 

নারী ঘরের পোশাক পরে নামাজ পড়লে হবে কি?

ঘুমের সুবিধার জন্য অনেকে রাতে কাপড় বদলিয়ে শোয়ার চেষ্টা করেন। রাতের পোশাককে নাইটি বলে। পুরুষ ও নারীর আলাদা আলাদা ধরনের রাতের পোশাক রয়েছে। এখন প্রশ্ন হলো- নারীরা নাইটি পরিধান করে নামাজ পড়তে পারবে কি?

এর উত্তর হলো- নারীরা নামাজে শুধু মুখমণ্ডল, হাতের কব্জি ও পায়ের পাতা খোলা রাখতে পারবে। এছাড়া আর কোনো অংশ যদি নামাজের সময় বেরিয়ে যায়, তাহলে নামাজ শুদ্ধ হয় না। সুতরাং নাইটি যদি এমন হয় যে, এটি পরিধানের পর শরীরের উক্ত তিন অংশ ছাড়া অন্য কোনো অংশের আকৃতি ফুটে উঠে, তাহলে এধরনের নাইটি নামাজে পরিধান করা জায়েজ হবে না।

আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘প্রাপ্ত বয়সী নারীরা ওড়না ছাড়া নামাজ আদায় করলে তা আল্লাহর নিকটে কবুল হবে না।’ (সুনান আবু দাউদ, হাদিস : ৬৪১)

উল্লেখ্য, নামাজে কেবল সতর আবৃত করতেই নির্দেশ দেওয়া হয়নি, বরং নামাজে সাজসজ্জার পোশাকও পরিধান করতে বলা হয়েছে। যেমন, আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘হে বনী-আদম! তোমরা প্রত্যেক নামাযের সময় সাজসজ্জা পরিধান করে নাও।’ (সুরা আ’রাফ, আয়াত : ৩১)

সুতরাং যে ধরনের পোশাক পরিধান করে সাধারণ লোকের সামনে যাওয়া লজ্জাজনক মনে করা হয়, তা নামাজে পরিধান করা মাকরূহ।

  • সর্বশেষ - অন্যান্য