, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

হাওয়া ছাড়াই চলবে গাড়ির চাকা!

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

হাওয়া ছাড়াই চলবে গাড়ির চাকা!

চলতি পথে গাড়ির চাকা পাংচার হয়ে যাওয়া খুব অবাক করা ঘটনা নয়। হরহামেশাই এই সমস্যায় পড়েন চালকরা। মাঝে মাঝে সঙ্গে অতিরিক্ত চাকা থাকলে বদলে নেওয়া যায়। আর না থাকলে বিপদে পড়তে হয় মাঝ পথে। তবে এবার আসছে হাওয়াবিহীন চাকা।

অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে পারে হাওয়া ছাড়া কি রাস্তায় মসৃণ ভাবে চলতে পারবে গাড়ি! সেই অসম্ভবই এ বার সম্ভব হতে চলেছে। চাকার মধ্যে নির্দিষ্ট চাপে হাওয়া ভরে তা ব্যবহার করা হয় গাড়ির চাকা হিসাবে। মসৃণ ভাবে গাড়ি চলাচলের জন্য চাকায় হাওয়ার চাপ নির্দিষ্ট রাখাটা জরুরি।

কিন্তু জানেন কি এ বার হাওয়া ছাড়াও গড়িয়ে যাবে গাড়ি! এবড়ো-থেবড়ো রাস্তাতেও বিনা বাধায় এগিয়ে যেতে পারবে। এ রকমই অত্যাধুনিক চাকা আসতে চলেছে বাজারে। এর নাম ফ্ল্যাট-ফ্রি টায়ার। সম্পূর্ণ হাওয়া ছাড়া হবে এই চাকা। এমন চাকা যা কখনও পাংচার হয় না।

সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২৪ সালের মধ্যেই তা বাজারে আসবে এই চাকা। বিদেশের এক চাকা প্রস্তুতকারক সংস্থা এটি বাজারে আনতে চলেছে। সংস্থার দাবি, সাধারণ চাকার থেকে এর আয়ুও অনেক বেশি হবে। ফলে ঘন ঘন টায়ার বদলানো বা তার মেরামতির জন্য অতিরিক্ত খরচ বইতে হবে না।

এই চাকা তুলনামূলক বেশি ভার বহনেও সক্ষম। অনেক খারাপ রাস্তাতেও সহজে চলাচল করতে পারে। তবে সুবিধার পাশাপাশি কিছু অসুবিধাও রয়েছে এর। ঘর্ষণে প্রচুর পরিমাণ তাপ উৎপন্ন হয়ে থাকে। সেই তাপ রোধ করার ক্ষমতা তুলনামূলক কম এই চাকায়।

এ ছাড়াও এর আরও একটি অসুবিধা হলো এই চাকায় চলা গাড়ি ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে চললে ঝাঁকুনির সম্ভাবনা থাকে। এই সমস্ত সমস্যা থেকে কী ভাবে মুক্তি পাওয়া যায় শেষ পর্যায়ে এরই কাজ করছে সংস্থা।

তবে হাওয়া ছাড়া চাকা বাজারে এই প্রথমবার নয়। সাইকেল, হুইলচেয়ার বা বাড়ি ভাঙার বড় গাড়িতেও এমন চাকা লাগানো হয়েছে অনেক আগেই।

সূত্র: সিনেট

  • সর্বশেষ - অন্যান্য