, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

এমপি নাহিমের বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

এমপি নাহিমের বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার ধানকাঠি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্থানীয় সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাকের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রাজ্জাক পিন্টু।

মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে ডামুড্যা উপজেলা নির্বাচন অফিস ও রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর এ অভিযোগ করেন তিনি।

আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবদুর রাজ্জাক পিন্টু ধানকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

লিখিত অভিযোগে তিনি বলেন, চতুর্থ ধাপে ধানকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ২৬ ডিসেম্বর। এ ইউনিয়নে দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হচ্ছে। এটি একটি উন্মুক্ত নির্বাচন। কিন্তু শুরু থেকে স্থানীয় সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক এ নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। আমি আবদুর রাজ্জাক পিন্টু একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী। আমাকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে নানান রকম চাপ প্রয়োগ করা হয়েছে। বর্তমানে আমার লোকজনকে হুমকি-ধামকি ও মামলার ভয় দেখানো হচ্ছে।

আবদুর রাজ্জাক আরও বলেন, ১৩ ডিসেম্বর সংসদ সদস্য ধানকাঠি ইউনিয়নে নেতাকর্মীদের নিয়ে গোলাম মাওলা রতনের (ঘোড়া প্রতিক) পক্ষে ছয়টি জায়গায় নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন। একজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়িতে সভা করে ভোট চেয়েছেন। সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পদে পদে বিঘ্ন সৃষ্টি করছেন। সংসদ সদস্য বলেছেন ‘আবার ভোটের পূর্বে এলাকায় আসবো’। তার কর্মকাণ্ডে সাধারণ মানুষ বিভ্রান্তির মধ্যে আছে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সংসদ সদস্যের হস্তক্ষেপমুক্ত একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার লক্ষ্যে অধিক সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিযুক্তের আহ্বান জানাই।

আবদুর রাজ্জাক জানান, নির্বাচনী প্রচারণার সময় সংসদ সদস্যের সঙ্গে ছিলেন ডামুড্যা উপজেলা আওয়ামী ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হুমায়ুন কবির বাচ্চু ছৈয়াল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বাবলু সিকদার, ডামুড্যা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ গোলন্দাজ, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মেহেদী হাসান রুবেল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান মন্টি, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শামীম, উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ও প্রার্থী গোলাম মাওলা রতন প্রমুখ।

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক বলেন, আমি ইউনিয়নগুলোতে ঘুরেছি। কিন্তু কারও পক্ষে ভোট চাইনি। আমি শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি প্রার্থীসহ স্থানীয় নেতাকর্মীর আহ্বান জনাই।

ডামুড্যা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও ধানকাঠি ইউনিয়ন পরিষদ রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. গোলাম মোস্তফা জাগো নিউজকে বলেন, অভিযোগের আবেদনটি আমরা পেয়েছি। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানানো হবে।

  • সর্বশেষ - সারাদেশ