, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল

  শাহ মোহাম্মদ রনি

  প্রকাশ : 

চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল

ভারতের দিল্লীর সর্বদয়া হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সকলের প্রিয় মানুষ অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল। বৃহস্পতিবার সকালে দিল্লীর ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ভিসতারা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তিনি ঢাকায় রওনা হন। তার স্ত্রী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অধ্যাপক দিলরুবা শারমিন, বিশেষ সহকারী সেলিম আলমগীর এবং সহকারী মোঃ তাহসিন এ সময় সাথে ছিলেন। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই জননেতাকে বরণ করতে ভিড় করেন বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মী, সমর্থক ও শুভাকাঙ্খী। অসুস্থ থাকার পরও তিনি উপস্থিত সকলকে কিছুটা নির্বাক সময় দেন। এ সময় সেখানে ভিন্ন পরিবেশ সৃষ্টি হয়। পরে তাকে বহন করা এ্যাম্বুলেন্স ছুটে চলে ময়মনসিংহের পথে। ময়মনসিংহ-ঢাকা চারলেন মহাসড়কের ভালুকা ও ত্রিশাল ছাড়াও বিভিন্ন স্পটে প্রিয় নেতাকে এক নজর দেখার জন্য প্রখর রোদ উপেক্ষা করে সড়কের দু’পাশে দাঁড়িয়ে থাকেন বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও সমর্থক।
জানা যায়, অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল তৃতীয় দফায় অসুস্থতা অনুভব করলে গত ২ মার্চ ভারত যান। চেন্নাই ও বেঙ্গালুরু হয়ে দিল্লী পৌঁছান। ফরিদাবাদে বিশেষায়িত হাসপাতাল সর্বদয়া’য় ভর্তি হন। তার হার্টে বড় ধরণের ৫টি ব্লক ধরা পড়ে। এনজিওগ্রামসহ অন্যান্য পরীক্ষা শেষে ৮ মার্চ সকালে তার ওপেনহার্ট সার্জারী সম্পন্ন হয়। এদিকে প্রিয় নেতার সুস্থতা কামনা করে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী, সমর্থক, শুভাকাঙ্খী এবং ফলোয়ার ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন। এটি তার প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। এদিকে চিকিৎসা শেষে প্রিয় নেতার আগমনের খবর ছড়িয়ে পড়লে ময়মনসিংহ নগরীর মদন বাবু রোডের বাসার সামনে নেতাকর্মী, সমর্থক ও শুভাকাঙ্খীরা ভিড় করেন। অনেকেই ব্যকুল হয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন। অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল হাত নেড়ে সবাইকে শুভেচ্ছা জানান। কিংবদন্তি সাবেক এ ছাত্রলীগ নেতা ঐতিহ্যবাহী সরকারি আনন্দমোহন কলেজের ভিপি ছিলেন। বিভিন্ন আন্দোলনে তার ভূমিকা মনে রাখার মতো। ১৯৯৬ সালে ময়মনসিংহে অনুষ্ঠিত মুক্তিযোদ্ধা জনতা মহাসমাবেশের প্রচার কমিটির আহবায়কের দায়িত্ব পালন করে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নজরে পড়েন। তিনি আওয়ামী লীগের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ তিনি ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনোনিত হন।



  • সর্বশেষ - মহানগর