, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

অজানা আতঙ্কে ভুগছে সরকার: রিজভী

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

অজানা আতঙ্কে ভুগছে সরকার: রিজভী

সরকার আন্তর্জাতিকভাবে প্রবল চাপের মুখে পড়ে অজানা আতঙ্কে ভুগছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, দুর্নীতিগ্রস্ত এই অবৈধ সরকার দেশকে এমন এক খাদের প্রান্তে নিয়ে গেছে সেখান থেকে সরে আসার কোনো সুযোগ নাই। এ কারণে বিএনপি নেতাকর্মীদের এই রমজান মাসেও মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতারের হিড়িক শুরু করেছে। সরকার আন্তর্জাতিকভাবে প্রবল চাপের মুখে পড়ে এখন দেশের বিরোধী দলকে উচ্ছেদ করার জন্য মহাপরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করেছে।

রোববার (১০ মার্চ) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, আজ চাঁদপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক আদালতে হাজিরা দিতে গেলে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এছাড়া হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলা বিএনপির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শ্রমিক দলের আহ্বায়ক সুমন ভুঁইয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ গাফ্ফার এবং ঢাকা মহানগর কোতোয়ালি থানা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মো. গিয়াস সিকদারকে গতরাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব সোহাগ নুরের ওপর ছাত্রলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে তাকে গুরুতর আহত করেছে। সে এখন হাসপাতালে মুমূর্ষু অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, হিংসা, সন্ত্রাসবাদ, বিরোধী দলের ওপর নিপীড়ন-নির্যাতন, নিজেদের স্বার্থসর্বস্বতাসহ হরেক কিসিমের অনাচারে দেশকে ভরিয়ে তুলেছে। মত প্রকাশের স্বাধীনতা, উদার মনোভাব, সবার একত্রীকরণ, বিনা বাধায় নিজের পছন্দ মতো বিশ্বাস নিয়ে চলার অধিকার হরণ করেছে এই আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা মনে করছেন বিএনপির নিরাপরাধ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করে নিজের ক্ষমতা কণ্টকমুক্ত রাখা যাবে। কিন্তু তার এই ধারণা অমূলক। এসব অপকর্ম করে শেখ হাসিনা তার ক্ষমতা ধরে রাখতে পারবেন না। গণতন্ত্রকে হত্যা করে আর ক্ষমতায় থাকা যাবে না।

রিজভী বলেন, এই আওয়ামী লীগ তত্ত্বাবধায়ক সরকার কায়েমের জন্য দিনের পর দিন হরতাল, ধ্বংসাত্মক জ্বালাও-পোড়াও, কাটো-মারো কর্মসূচি চালিয়েছিল। সেই তারাই আবার গায়ের জোরে তা সংবিধান থেকে মুছে দিয়ে ভোট নির্বাচনকেও বাকশালীকরণ করে কলঙ্ক রচনা করেছে। এই কলঙ্কের তীব্রতা এতটাই বেশি যে তা ছাইচাপা আগুনের মতো আর লুকোনা থাকবে না। তাদের সব কেলেঙ্কারি উন্মেচিত হয়ে পড়ায় এরা জনদৃষ্টি দিকভ্রান্ত করার জন্যই রমজান মাসেও নতুন করে বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

তিনি অবিলম্বে গ্রেফতার নেতাদের মিথ্যা ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা প্রত্যাহার এবং তাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফৎ আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, কৃষকদলের যুগ্ম-সম্পাদক কৃষিবিদ মেহেদী হাসান পলাশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ - রাজনীতি