, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

হাসান মাহমুদ শুভর তিনটি কবিতা

  সাহিত্য ডেস্ক

  প্রকাশ : 

হাসান মাহমুদ শুভর তিনটি কবিতা

আক্ষেপ

এই শুক্রবারে বোধহয় আমার মৃত্যু হবে!
আক্ষেপের মৃত্যু।
তোমাকে দেখার আক্ষেপ!
বহুকাল আগের শ্যাওলা পরা আক্ষেপ!
দুঃখখেকো মানুষ আজ আক্ষেপ খেয়ে বাঁচি।
রোজ নিত্য দুঃখ উড়াই খুচরো দামে।।

তোমার উপেক্ষা আর আমার আক্ষেপ সমানুপাতিক সম্পর্ক বৃত্তের পরিধির অন্তর!

আজ তুমি ব্যাস, ব্যাসার্ধ আর জ্যা দিয়ে বৃত্ত সাজাও।
আর আমি-রেডিয়াম এককে দুঃখ বিলাই!

****

অনিয়ম

প্রেমিকের হাত ধরে হেঁটে যাওয়া প্রেমিকা ও একদিন মরে যায়!
বেঁচে যায় স্মৃতি।

বাবার হাত ধরে হেঁটে শিশুটিও হঠাৎ করে মরে যায়!
বেঁচে যায় অনিয়ম থেকে।

মাতৃগর্ভের ফিটাস ভেসে যায় ড্রেনে,
চেয়ে রয় অনিয়মের মানবতা।
বেঁচে যায় সুশীল সমাজ।

ষষ্ঠ ইন্দ্রীয় যখন মারা যায়,
অনিয়ম থেকে বেঁচে রয় শরীর।
বেঁচে রয় মৃত্যু!

****

অসুখ

বিদঘুটে অসুখ আমায় ছুঁয়ে ফেলে, ঠিক মেঘ যেমন আকাশ ছুঁয়ে দেয়!
তাতে কি?
আমি তো অসুখের গালে চুমু খেয়ে বাঁচি!

হাড়-মাড় সব খেয়ে দিয়েছে পতঙ্গের দল, যেমনটা জলস্রোত নদী খেয়ে বাঁচে
মানবের লাশ!
জলপোকা রক্তের ঘ্রাণ শুষে খেয়ে বাঁচে।

লাশের আর্তনাদে তারাদের ভিড় জমেছে, লেপ্টে থাকা ভিড়!
নৈঃশব্দের দীর্ঘায়ু।

  • সর্বশেষ - সাহিত্য