, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

রোনালদোর দাওয়াতে যাবেন না মোবাইল ভেঙে ফেলা ওই কিশোর

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

রোনালদোর দাওয়াতে যাবেন না মোবাইল ভেঙে ফেলা ওই কিশোর

এভারটন ম্যাচ হারের ক্ষোভ তখন সঙ্গী। ড্রেসিং রুমে ফেরার সময় হঠাৎই টানেলে দাঁড়িয়ে ভিডিও করা এক কিশোরের ফোন ভেঙে ফেলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা অবশ্য পরে ক্ষমা চেয়েছেন ঘটনাটির জন্য। ১৪ বছরের কিশোর জ্যাক হার্ডিংকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে আসারও। 

ব্যাপারটা অবশ্য গড়িয়েছে পুলিশ অবধি। জানা গেছে, ওই কিশোর প্রথমবারের মতো দেখতে গিয়েছিলেন ফুটবল ম্যাচ। তার ফোন ভেঙে ফেলায় রোনালদোর বিরুদ্ধে তদন্তও শুরু করেছে পুলিশ। এবার পর্তুগিজ তারকার দাওয়াত প্রত্যাখ্যান করেছেন জ্যাক নামের ওই কিশোরের পরিবারও।

লিভারপুল ইকোকে জ্যাকের মা সারাহ বলেছেন, ‘ইউনাইটেড খুব ভয়ঙ্করভাবে ব্যাপারটাকে সামলেছে। এটা আসলে বিষয়টাকে আরও খারাপ করেছে সত্যি বলতে।’

‘ব্যাপারটাকে আমি যেভাবে দেখি, যদি কেউ তাকে রাস্তায় লাঞ্ছিত করে আর এরপর বলে রাতে খাবার খেতে যেতে, আমরা যাবো না। শুধু সে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো বলে, কেন আমরা যাবে? এটা মনে হয় আমরা তার কাছে ঋণী, কিন্তু আমি দুঃখিত, আমরা তা না।’

‘আমরা সদয়ের সঙ্গে ইউনাইটেডে যাওয়া প্রত্যাখ্যান করছি কারণ জ্যাক সেখানে যেতে ও রোনালদোকে দেখতে চায় না। সে এটা খুব পরিষ্কার করে বলেছে। এখানে আমার কোনো কথা নেই, এটা আমার ছেলে বলেছে। দিনশেষে, এটা তারই ব্যাপার।’

‘এটা আমার চেয়ে তাকে বেশি প্রভাবিত করেছে। আমি নিজের সবকিছু দিয়ে তার মানসিকভাবে উন্নতির চেষ্টা করছি- সে ইউনাইটেড যেতে ও রোনালদোকে দেখতে চায় না। আমি এখান যেটা নিয়ে কথা বলছি পুরো বিষয়টাই পুলিশের হাতে।’
 
এর আগে ইনস্টাগ্রামে ক্ষমা চেয়ে রোনালদো লিখেছেন, ‘আমরা যেমন কঠিন সময়ের মুখোমুখি হয়েছি এমন কঠিন মুহূর্তে আবেগ সামলে রাখা কখনোই সহজ কাজ নয়। তবুও, এই সুন্দর খেলাটার প্রতি ভালোবাসা বাড়াতে আমাদের সবসময় সম্মান, ধৈর্য ও উদাহরণ তৈরি করতে হবে তরুণদের জন্য।’

পর্তুগিজ তারকা আরও লিখেছেন, ‘আমি নিজের বিস্ফোরণের জন্য ক্ষমা চাই আর যদি সম্ভব হয় ওই সমর্থককে ওল্ড ট্রাফোর্ডে আমন্ত্রণ জানাতে চাই স্পোর্টসম্যানশিপ ও ফেয়ার প্লের স্বাক্ষর হিসেবে।’

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা