, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

উচ্চশিক্ষায় আসন ১৩ লাখ, ভর্তিযুদ্ধ হবে ৫০ হাজারে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

উচ্চশিক্ষায় আসন ১৩ লাখ, ভর্তিযুদ্ধ হবে ৫০ হাজারে

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিযুদ্ধ শুরু হতে যাচ্ছে। এবার দেশের সব সরকারি-বেসরকারি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য প্রায় ১৩ লাখ আসন ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। এরই মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বাদে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার সময় ঘোষণাও করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

ইউজিসি সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫০ হাজার ৩৯৬টি আসন রয়েছে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২ লাখ ৩ হাজার ৬৭৫টি, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ৮ লাখ ৭২ হাজার ৮১৫টি, ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬৪ হাজার ৫২৯টি, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ৮৭ হাজার ৫৯৩টি, দুটি আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৪০টি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজে ২৩ হাজার ৬৩০টি, চার ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ৭২০টি, টেক্সটাইল কলেজে ৭২০টি, সরকারি ও বেসরকারি নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কলেজে ৫ হাজার ৬০০টি আসন রয়েছে।

এছাড়া দেশের ১৪টি মেরিন অ্যান্ড অ্যারোনটিক্যাল কলেজে ৭২০টি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত প্রতিষ্ঠানে ৩ হাজার ৭৯০টি, বিশেষ (প্রতিবন্ধী) শিক্ষার্থীর জন্য ইসলামিক ইউনিভাসির্টি অব টেকনোলজি (আইইউটি) ও এশিয়ান ইউনিভাসির্টি ফর উইমেনে (এইউডব্লিউ) ৮০০টি আসন রয়েছে। সব মিলে সারাদেশে প্রায় ১৩ লাখ আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবেন।

অন্যদিকে গত শুক্রবার দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। দেশের ৫২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষাকার্যক্রম বিদ্যমান রয়েছে। এগুলোর মধ্যে এবার ৪২টিতে অনার্সে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। তবে গুচ্ছবদ্ধ পরীক্ষা নিচ্ছে ৩২টি বিশ্ববিদ্যালয়। গত বছর ২৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এ পদ্ধতির পরীক্ষার অধীনে ছিল। এবার আরও তিনটি যুক্ত হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- সাধারণ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি (জিএসটি) এবং কৃষি ও প্রকৌশল। জিএসটি গ্রুপে ২২টি বিশ্ববিদ্যালয় আছে। এছাড়া সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং তিনটি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় এবার আলাদা দুই গুচ্ছে পরীক্ষা নেবে। গুচ্ছে আগামী ৩, ১০ ও ১৭ সেপ্টেম্বর পরীক্ষা নেওয়া হবে।

জিএসটি গ্রুপের পরীক্ষা বিজ্ঞান, মানবিক এবং বিজনেস স্টাডিজের শিক্ষার্থীদের জন্য মোট তিনটি পরীক্ষা হবে। তারিখ ৩, ১০ ও ১৭ সেপ্টেম্বর। প্রকৌশল গুচ্ছের পরীক্ষা ৬ আগস্ট।

এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৭-২৮ মে, বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২ আগস্ট, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৫-২৭ আগস্ট, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৬-২৫ আগস্ট, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩১ জুলাই থেকে ১১ আগস্ট, বুয়েটে ৪ থেকে ১৮ জুন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে ৩ জুন।

jagonews24ইউজিসি থেকে প্রাপ্ত তালিকায় বিশ্ববিদ্যালয়ে আসনের চিত্র

দেশের তিনটি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা হবে আগামী ৬ আগস্ট। যে তিন বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা হবে সেগুলো হলো- চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট), খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট)।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য (পাবিলক বিশ্ববিদ্যালয়) অধ্যাপক দিল আফরোজা জাগো নিউজকে বলেন, এবার প্রথমবর্ষে ভর্তির ক্ষেত্রে আসন সংখ্যা তেমন বৃদ্ধি করা হয়নি। কারণ প্রতি বছর অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন খালি থাকে। প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা মোতাবেক গুরুত্বপূর্ণ ও বিশেষায়িত বিষয়ে আসন সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা চাই না অনার্স-মাস্টার্স পাস করে কেউ বেকার বা ছোট মানের চাকরির জন্য দৌড়াক। আমরা চাই যোগ্যতা ও শিক্ষাভিত্তিক কর্মস্থল। সে কারণে শিক্ষার্থীদের স্কিল তৈরির বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা চালুর চিন্তা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এবছর এইচএসসি-সমমান পরীক্ষায় দেশের ১১টি শিক্ষা বোর্ডে পাস করেছেন ১৩ লাখ ৭১ হাজার ৬৮১ জন শিক্ষার্থী। পাসের হার ৯৫ দশমিক ২৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন। এর হার শতকরা ১৩ দশমিক ৭৯ ভাগ। ২০২০ সালে অটোপাস হওয়ায় পাসের হার ছিল শতভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৫৩ হাজার ৬১৪ জন।

  • সর্বশেষ - শিক্ষাঙ্গন