, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনায় কালবৈশাখী ঝড়ে নারীর মৃত্যু, আহত ৪

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

নেত্রকোনায় কালবৈশাখী ঝড়ে নারীর মৃত্যু, আহত ৪

নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলায় ঝড়ে গাছচাপা পড়ে এক নারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও চারজন। ঝড়ে গাছপালাসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অনেক জায়গায় বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে তার ছিঁড়ে গেছে।

নিহত নারীর নাম মজিদা খাতুন (৫৫)। তিনি উপজেলার খারনৈ ইউনিয়নের বাহাদুরপুর এলাকায় মৃত মুসলিম উদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) রাত পোনে ১২টার দিকে হঠাৎ করে প্রবল বেগে কালবৈশাখী ঝড়ে শুরু হয়। এসময় একটি জামগাছ ভেঙে ঘরের চালে পড়লে চাপা পড়ে মারা যান মজিদা খাতুন। আহত হন আরও চার ব্যক্তি।

ঝড়ে উপজেলার আটটি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের অন্তত দুইশ বাড়িঘরের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ৯টি বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে গেছে। তার ছিঁড়ে গেছে ৪০টি এলাকায়। ধানি জমির পাকা ধান মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে। সবজিক্ষেতও নষ্ট হয়েছে। ঝড়ের পর থেকে বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন রয়েছে।

নাজিরপুর এলাকার বাসিন্দা কায়সুল আলম বলেন, ঝড়ে তার দুটি ও বিমল চন্দ্র সাহার একটি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘরের চালের ওপর গাছ ভেঙে পড়েছে।

বড়খাপন এলাকার মঞ্জুরুল হক বলেন, ঝড়ে তার একটি ঘরের চাল ধসে পড়ে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে গেছে।

কলমাকান্দা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) প্রকৌশলী রাশেদুজ্জামান বলেন, ঝড়ে ৯টি বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে গেছে। ৪০টি এলাকায় বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে লাইন নষ্ট হয়ে গেছে। এগুলোর মেরামত চলছে।

কলমাকান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফারুক আহম্মেদ বলেন, ঝড়ে ফসলের তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি। যাদের ক্ষতি হয়েছে তাদের তালিকা করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবুল হাসেম বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের তালিকা তৈরা করা হচ্ছে। নিহত ব্যক্তির পরিবারকে সহায়তা করা হবে।

নেত্রকোনা-১ আসনের সংসদ সদস্য মানু মজুমদার জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে সরকারের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক চেষ্টা করা হবে।

  • সর্বশেষ - মহানগর