, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

ঈদে সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্বের বার্তা মোদি-মমতার

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ঈদে সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্বের বার্তা মোদি-মমতার

বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের মতো দক্ষিণ এশীয় দেশগুলো ছাড়াও বিশ্বের অনেক দেশেই মঙ্গলবার (৩ মে) পালিত হচ্ছে মুসলিমদের অন্যতম বৃহৎ উৎসব ঈদুল ফিতর। এদিন সকালে এসব দেশের মুসল্লিরা ঈদের নামাজ আদায় করেন এবং বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উৎসব উদযাপন করছেন।

এদিকে এক মাসের সিয়াম সাধনার পর অন্যতম বৃহৎ এই উৎসব উপলক্ষে মুসলিমদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সোমবার রাতে টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় এই শুভেচ্ছা জানান তিনি।

মোদি বলেন, আমাদের সমাজে শান্তি ও ভ্রাতৃত্ব বিরাজ করুক। একইসঙ্গে সকলের সুস্বাস্থ্য ও সমৃদ্ধিও কামনা করেন বিজেপির এই প্রধানমন্ত্রী।

টুইটারে তিনি লেখেন, ‘ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা। পবিত্র এই উৎসবের দিনে আমাদের সমাজে ঐক্য ও ভ্রাতৃত্ব বৃদ্ধি পাক। সকলের সুস্বাস্থ্য ও সমৃদ্ধি কামনা করছি।’

এদিকে ঈদ উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভারতের প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দও। তিনি বলেন, ঈদ আমাদের শান্তিপূর্ণ ও সমৃদ্ধ সমাজ গড়ে তুলতে প্রেরণা দেয়।

ভারতীয় প্রেসিডেন্টের ভাষায়, ‘ঈদের পবিত্র দিনে আসুন আমরা নতুন করে শপথ নিই, নিজেদের মানবতার স্বার্থে উৎসর্গ করব। দরিদ্র মানুষের উন্নতির জন্য কাজ করব। ঈদ উপলক্ষে আমি দেশবাসীকে, বিশেষত মুসলিম ভাই-বোনেদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।’

অন্যদিকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘ভারতে ভেদাভেদ চলছে ঠিকই। কিন্তু বাংলা সবার থেকে আলাদা। আমরা সবার বিশ্বাস সব ধর্ম সঙ্গে নিয়ে চলি। এখানে যে যার ধর্মাচরণ নিয়ে শান্তিতে থাকেন। তবে যখন উৎসব হয় তখন গোটা বাংলা তা একসঙ্গে পালন করে।’

ভারতের অন্য রাজ্যের সঙ্গে তুলনা টেনে কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারকে পরোক্ষ আক্রমণ করেন মমতা। নাম না করে পশ্চিমবঙ্গের এই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলার মতো ধর্মীয় ঐক্য দেশের আর কোথাও নেই। তাই অনেকেই আমাদের হিংসা করে। আমাদের মধ্যে ভেদাভেদ তৈরির চেষ্টা করে। কিন্তু বাংলা লড়তে জানে। তারা এই ধরনের চেষ্টার কাছে মাথা নোয়াবে না।’

  • সর্বশেষ - আন্তর্জাতিক