, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

বাজারে উঠেছে ঈশ্বরদীর রসালো দেশি লিচু, দামে হতাশ চাষিরা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

বাজারে উঠেছে ঈশ্বরদীর রসালো দেশি লিচু, দামে হতাশ চাষিরা

লিচুর রাজধানী খ্যাত পাবনার ঈশ্বরদীর বাজারে উঠেছে দেশি রসালো মিষ্টি লিচু। বেচাকেনাও জমেছে দেশের সবচেয়ে বড় লিচুর হাট জয়নগরে। তবে বোম্বাই ও চায়না জাতের লিচু বাজারে আসতে আরও সপ্তাহখানেক সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন চাষিরা।

জয়নগর হাট ছাড়াও আওতাপাড়া, দাশুড়িয়া, চরগড়গড়িসহ উপজেলার আরও কিছু স্থানেও বসেছে লিচুর হাট। এসব হাটে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পাইকাররা এসে লিচু কিনে গাড়িতে বোঝাই করে নিয়ে যাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) সরেজমিনে জয়নগর হাটে দেখা যায়, এক হাজার দেশি লিচু (আঁটি) লিচু ১০০০-১৩০০ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে।

তিলকপুর গ্রামের লিচু চাষি শামসুল আলম বলেন, ‘এবার দেশি লিচু আকারে কিছুটা ছোট হয়েছে। তীব্র খরার কারণে এমন হয়েছে। পাইকারি ক্রেতারা লিচুর দাম কম বলছেন। এত কম দামে লিচু বিক্রি করলে আমাদের লাভ হবে না।’

বক্তারপুর গ্রামের কৃষক কীরণ হোসেন বলেন, ‘আমার দুই বাগানে ৬০০ লিচু গাছ রয়েছে। দেশি লিচুর গাছ রয়েছে ৫০টি। পাঁচ গাছের লিচু আজ হাটে এনেছি। কিন্তু দাম শুনে আমি হতবাক। এত কম দাম পাবো ভাববেই পারিনি।

তিনি আরও বলেন, এক সপ্তাহ পরেই হাটে বোম্বাই জাতের লিচু উঠবে। এবার লিচুর যে দাম দেখছি তাতে আমাদের লোকসান গুনতে হবে।

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত লিচু চাষি কিতাব মণ্ডল ওরফে লিচু কিতাব বলেন, দেশের সবচেয়ে বেশি লিচুর আবাদ হয় ঈশ্বরদীতে। এখানকার লিচু অত্যন্ত সুস্বাদু। সেজন্য দেশজুড়ে এ লিচুর সুনাম রয়েছে। গত দুবছর লিচুর আবাদ তুলনামূলক খারাপ ছিল। এবার ফলন ভালো হয়েছে। দেশি লিচু বাজারে এসেছে কিন্তু দাম বেশ কম। প্রতি বছর ঈশ্বরদীতে ৩৫০ থেকে ৪০০ কোটি টাকার লিচু উৎপাদন হয় বলে জানান এ চাষি।

বাজারে উঠেছে ঈশ্বরদীর রসালো দেশি লিচু, দামে হতাশ চাষিরা

কুমিল্লার লাকসাম থেকে লিচু কিনতে আসা ব্যবসায়ী আবু হানিফ বলেন, দেশি লিচু আকারে ছোট তাই দামও কম। এক হাজার লিচু ১১০০-১৩০০ টাকা দরে কিনেছি।

প্রতি বছর জয়নগর হাটে লিচু কিনতে আসেন নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘এখানকার লিচু খুব সুস্বাদু। এজন্য ক্রেতাদের কাছে চাহিদা বেশি। তবে এখনো বোম্বাই জাতের লিচু হাটে আসেনি। আজ দেশি লিচু ৫০ হাজার কিনেছি। তুলনামূলক দামও এ হাটে কম।’

জয়নগর লিচু হাটের ইজারাদার কামাল হোসেন জানান, গত ৫ মে থেকে হাটে লিচু উঠতে শুরু করেছে। এখনো এক মাসের বেশি হাট চলবে। এক সপ্তাহ পরেই বোম্বাই ও চায়না জাতের লিচু হাটে তুলবেন বিক্রেতারা।

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন কোটি কোটি টাকার লিচু বেচাকেনা হয় জয়নগর হাটে। এবার লিচুর ফলন ভালো হয়েছে। তাই এবার হাট আরও জমজমাট হবে বলে আশা করছি।

বাজারে উঠেছে ঈশ্বরদীর রসালো দেশি লিচু, দামে হতাশ চাষিরা

গত বছরের তুলনায় এবার ঈশ্বরদীতে লিচুর আবাদ বেড়েছে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মিতা সরকার। তিনি বলেন, এবার ঈশ্বরদীতে ৩৪০০ হেক্টর জমিতে লিচুর আবাদ হয়েছে। গত বছরের চেয়ে অতিরিক্ত প্রায় ৮০০ হেক্টর জমি লিচু চাষের আওতায় এসেছে।

তিনি আরও জানান, প্রতিটি গাছে ৩ থেকে ৩০ হাজার পর্যন্ত লিচু ধরে। প্রতি বছর এখানে ২০ থেকে ২৫ হাজার মেট্রিক টন লিচু উৎপাদন হয়। টাকার হিসেবে প্রায় ৪০০ কোটি টাকারও বেশি লিচু ঈশ্বরদীতে বিক্রি হয়।

ইশ্বরদীতে বোম্বাই ও চায়না জাতের লিচুর আবাদ সবচেয়ে বেশি বলেও জানান এ কৃষি কর্মকর্তা। তিনি বলেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার লিচুর ফলন ভালো হয়েছে।

  • সর্বশেষ - সারাদেশ