, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

মাঠে গড়ালো দ্বিতীয় দিনের খেলা, মেইডেনে শুরু এবাদত-মোস্তাফিজের

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

মাঠে গড়ালো দ্বিতীয় দিনের খেলা, মেইডেনে শুরু এবাদত-মোস্তাফিজের

টেস্ট কাকে বলে, বাংলাদেশি ব্যাটারদের যেন শেখাচ্ছেন ব্রেথওয়েট-বোনাররা। একের পর এক ওভার কেটে যাচ্ছে, খারাপ বল না পেলে ছোঁয়ারও চেষ্টা করছে না ক্যারিবীয়রা।

অ্যান্টিগা টেস্টে দ্বিতীয় দিনের খেলা মাঠে গড়িয়েছে। দিনের প্রথম ওভারটি করেন এবাদত হোসেন। মেইডেনে শুরু। এরপর মোস্তাফিজুর রহমানও মেইডেন নিয়েছেন। ক্যারিবীয়রা প্রথম রান পেয়েছে দিনের ১৭তম বলে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৫২ ওভার শেষে স্বাগতিকদের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৯৭ রান।

বাংলাদেশের ১০৩ রানের জবাবে প্রথম দিন শেষে ৪৮ ওভারে ২ উইকেটে ৯৫ রান তোলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্রেইগ ব্রেথওয়েট ১৪৯ বলে ৪২ আর এনক্রূমাহ বোনার ৪৩ বলে ১২ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন মাঠে নেমেছেন।

প্রথম দিন বাংলাদেশকে অলআউট করে ব্যাটিংয়ে নামার পর থেকেই ধীরগতির ব্যাটিংয়ে মন দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওপেনিংয়ে জন ক্যাম্পবেল আর ক্রেইগ ব্রেথওয়েট কোনো ধরনের ঝুঁকি নেননি। ফলে প্রথম ১৫ ওভারে মাত্র রান উঠে ১৫। বিনা উইকেটে চা-বিরতিতে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বিরতির পর একটু রানের গতি বাড়লেও চড়াও হয়নি স্বাগতিকরা। ফলে ২৫ ওভার পর্যন্ত উইকেটও তুলে নিতে পারেনি বাংলাদেশ। অবশেষে ক্যাম্পবেল-ব্রেথওয়েটের ধীরগতির জুটিটি ভেঙেছেন মোস্তাফিজ।

২৬তম ওভারে মোস্তাফিজের যে বলে বোল্ড হয়েছেন ক্যাম্পবেল, সেটিও যে মারতে গেছেন এমন নয়। ডিফেন্ডই করেছিলেন ক্যারিবীয় ওপেনার, ইনসাইডেজ হয়ে বেল পড়ে যায়। ৭২ বলে ২৪ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন ক্যাম্পবেল। ৪৪ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় ক্যারিবীয়রা।

পরের ওভারে আবারও উইকেট পেতে পারতেন মোস্তাফিজ। কিন্তু টানা দুই বলে রেইফার আর ব্রেথওয়েটের কঠিন ক্যাচ স্লিপে ডাইভ দিয়ে হাতে লাগালেও ধরতে পারেননি লিটন দাস।

মোস্তাফিজ ধীরগতির ওপেনিং জুটি ভাঙার পর এবাদত হোসেনও পেয়েছেন উইকেটের দেখা। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে রেইমন রেইফারকে (১১) ফিরিয়েছেন এবাদত। ডাইভ দিয়ে ক্যারিবীয় ব্যাটারের ক্যাচটি তালুবন্দি করেন উইকেটরক্ষক নুরুল হাসান সোহান।

বাংলাদেশকে জবাব দিতে নেমে শুরুটাই ধীরগতির ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের। মোস্তাফিজুর রহমান আর খালেদ আহমেদ জুটি গড়ে বোলিং শুরু করেন। দুই ওপেনার ক্যাম্পবেল আর ব্রেথওয়েট তাদের প্রথম ৫ ওভারে এক রানও নেননি। অর্থাৎ মেইডেন যায় প্রথম ৫ ওভার।

স্বাগতিকদের প্রথম রান আসে ৩২তম বলে। এরপরও খোলস ছেড়ে বের হননি ক্যারিবীয় দুই ওপেনার। মোস্তাফিজ তার প্রথম চার ওভারই নেন মেইডেন। ৫ ওভারে ৪ মেইডেনসহ ১ রান দেন মোস্তাফিজ। খালেদ ৫ ওভারে ৩ মেইডেনসহ দেন ৩ রান।

প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ৮ রান নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৩ ওভারে নেয় ১০। অবশেষে ১৪তম ওভারে এসে রান কিছুটা বাড়ে তাদের। মেহেদি হাসান মিরাজকে একটি বাউন্ডারি হাঁকান ব্রেথওয়েট। তবে এরপর ক্যারিবীয় দলপতি আবার খোলসে ঢুকে পড়েন।

এর আগে অধিনায়ক সাকিবের ক্যারিয়ারের ২৮তম হাফসেঞ্চুরির পরও ৩২.৫ ওভারে ১০৩ রানে থামে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস।

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা