ময়মনসিংহ, , ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

ফোর্বসের তালিকায় বাংলাদেশের ইশরাত করিম ও রাবা খান

  অনলাইন ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ফোর্বসের তালিকায় বাংলাদেশের ইশরাত করিম ও রাবা খান
ইশরাত করিম ও রাবা খান। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস প্রকাশ করেছে সফল ৩০ জন এশিয়ার তরুণের নাম। আর এই তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন দুই বাংলাদেশি নারী।

তাদের একজন হলেন আমাল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ইশরাত করিম। তিনি সোশ্যাল এন্ট্রাপ্রেনিউর ক্যাটাগরিতে স্থান করেছেন।

অপরজন হলেন রাবা খান। তিনি মিডিয়া, মার্কেটিং অ্যান্ড অ্যাডভার্টাইজিং ক্যাটাগরিতে স্থান করে নিয়েছেন।

চলতি বছর এশিয়ার ৩০০ জন তরুণ উদ্যোক্তা, নেতা ও নতুন পথ উন্মোচনকারীদের প্রাথমিক তালিকা করে মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস।

সেখান থেকে সেরা ৩০ জনের নাম প্রকাশ করা হয়। যার প্রচ্ছদে স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশের দুজনসহ এশিয়ার মোট ছয়জন সফল তরুণের মুখ।

বাংলাদেশের এই দুই তরুণীর পরিচয় দিয়েছে ফোর্বস।

ইশরাত করিম:

ইউনিভার্সিটি অব কলোরাডো থেকে মাস্টার্স শেষে দেশে ফিরেন ইশরাত করিম। শুরু করেন অলাভজনক প্রতিষ্ঠান আমাল ফাউন্ডেশন।

বাল্যবিবাহ, পারিবারিক নির্যাতনের শিকার, তালাকপ্রাপ্ত ও বিধবা নারীদের নিয়ে কাজ করেন তিনি। শাড়ি, শাল, কাঠের জিনিসপত্রসহ নানা জিনিস তৈরির প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের স্বাবলম্বী করেন।

বর্তমানে বিভিন্ন গ্রামের ৫২ হাজারের বেশি মানুষকে নিয়ে কাজ করছে ইশরাতের আমাল ফাউন্ডেশন।

ফোর্বসের তালিকায় বাংলাদেশের ইশরাত করিম ও রাবা খান
ফোর্বসের প্রচ্ছদে এশিয়ার ছয় সফল তরুণের মুখ। ছবি: ফোর্বস

রাবা খান :

রাবা খান ঝাকানাকা প্রজেক্টের এন্টারটেইনার। তিনি তার ইউটিউব চ্যানেলে বিভিন্ন কৌতুকধর্মী ভিডিওর মাধ্যমে সামাজিক নানা সমস্যা তুলে ধরেন।

কখনও তাকে গাইতে বা কারো বাচন রপ্ত করতে দেখা গেছে। বিশেষ করে পুরনো টিভি বিজ্ঞাপনে তার ঠোঁট মেলানো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

এছাড়া সমাজের নানা ধরনের চরিত্রগুলো তিনি অনুকরণ করে উপস্থাপন করেন।

রাবা খান বেশিরভাগ সময় ফেসবুকে সক্রিয় থাকেন। তার কাজের জন্য ২০১৮ সালে ইউনিসেফের ইয়ুথ অ্যাম্বাসেডর টু অ্যাডভোকেট ফর চিলড্রেন রাইটস হিসেবে মনোনীত হয়েছিলেন।

  • সর্বশেষ - অর্থ-বাণিজ্য