, ২১ আশ্বিন ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

ঈদ যাত্রায় ভোগান্তি কমাতে মহাসড়কে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

ঈদ যাত্রায় ভোগান্তি কমাতে মহাসড়কে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

আসন্ন ঈদ উল আজহা সামনে রেখে মহাসড়কে যান চলাচল বৃদ্ধি পেয়েছে। বেড়েছে ঘরমুখো মানুষের চাপ। তাই ঘরমুখো যাত্রীদের বাড়ি ফেরা নির্বিঘ্ন করতে এবং যানজট নিরসনে গাজীপুরের চন্দ্রা মোড়ে অতিরিক্ত ২০০ পুলিশ মোতায়েন করা হচ্ছে। 

এছাড়া যাত্রীদের কাছ থেকে যাতে অতিরিক্ত ভাড়া পরিবহনগুলো আদায় করতে না পারে সে জন্য সাদা পোশাকে পুলিশ মোতায়েন থাকবে।

জানা গেছে, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রাকে বলা হয় উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার। এখান দিয়ে উত্তরবঙ্গের ২৬টি জেলার মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। প্রতি ঈদে চন্দ্রা মোড়ে যানজট সৃষ্টি হয়। ফলে সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। এছাড়া কোরবানি পশু ঢাকার হাটে প্রবেশের ক্ষেত্রেও এই যানজট বাধার সৃষ্টি করে। কিন্তু এ বছর যাতে কোনো যানজট সৃষ্টি না হয় সে জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। 

এদিকে ভোগান্তি কমাতে ইতোমধ্যে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ও গাজীপুর-টাঙ্গাইল মহাসড়কের নির্মাণাধীন সফিপুর, গোড়াই ও নাওজোড় ফ্লাইওভার ও ব্রিজগুলো আগের ঈদের ন্যায় যান চলাচলের জন্য  খুলে দেওয়া হয়েছে। ফ্লাইওভার খুলে দেওয়ায় কিছুটা স্বস্তিতে সাধারণ মানুষ।  

সালনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মো. ফিরোজ হোসেন জানান, চন্দ্রা মোড়ে সালনা হাইওয়ে থানা পুলিশের পাশাপাশি ২০০ জন হাইওয়ে পুলিশ যানজট নিরসনে কাজ করবে। এছাড়া যাত্রীদের থেকে বাসের কাউন্টারগুলো যাতে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করতে না পারে সে জন্য সাদা পোশাকের পুলিশ সদস্যরা মোতায়েন থাকবেন। যাত্রী উঠা নামার জন্য পরিবহনগুলোর জন্য কিছু স্থান নিদিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। 

  • সর্বশেষ - আলোচিত খবর