, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

মাদরাসায় দেওয়া চামড়া সংরক্ষণ ও বিক্রির দায়িত্ব নিলো সিসিক

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

মাদরাসায় দেওয়া চামড়া সংরক্ষণ ও বিক্রির দায়িত্ব নিলো সিসিক

প্রতি ঈদুল আজহায় সিলেটে কওমি মাদরাসা ও এতিমখানাগুলোকে হাজার হাজার পিস কোরবানির পশুর চামড়া দান করা হয়। সারাদিন বাসাবাড়ি থেকে কাঁচা চামড়াগুলো সংগ্রহ করেন এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। হাড়ভাঙা খাটুনি খেটে সংগ্রহ করে ঈদের দিন বিকেলে দামে ধস নামায় তা বিক্রি করতে না পেরে বিপাকে পড়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

গত ঈদুল আজহায় কাঁচা চামড়া বিক্রি করতে না পেরে সিলেটে প্রায় লক্ষাধিক পিস পশুর চামড়া মাটিতে পুঁতে ফেলা হয় অথবা নদীতে ফেলে দিতে হয়েছে।

এ অবস্থায় আসন্ন ঈদুল আজহার দিন সিলেট মহানগরের মাদরাসা ও এতিমখানাগুলোতে সংগ্রহ করা চামড়া সাময়িক সময়ের জন্য লবণ দিয়ে সংরক্ষণ করবে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)।

সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, নগরের সব মাদরাসা ও এতিমখানায় সংগৃহীত কোরবানির পশুর চামড়া এ বছর সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত স্থানে সংরক্ষণ করা হবে। পশুর চামড়া যাতে নষ্ট না হয় সেজন্য পশু কোরবানির পর প্রয়োজনীয় লবণ যুক্ত করে তা সংরক্ষণ করবে সিসিক। এরপর তা যথাযথ বাজার মূল্যে বিক্রি করে তালিকা অনুযায়ী নিজ নিজ মাদরাসা ও এতিমখানায় পৌঁছে দেওয়া হবে টাকা।

পরিবহন ও সংরক্ষণে কোনো ধরনের ফি মাদরাসা কর্তৃপক্ষকে দিতে হবে না জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘সঠিক সময়ে লবণযুক্ত করা হলে কোনো চামড়া নষ্ট হবে না। ফলে সময় নিয়ে উপযুক্ত দামে চামড়া বিক্রি করা যাবে। সেজন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে সচেতন হতে হবে। সেইসঙ্গে মাদরাসাছাত্রদের কষ্ট কিছুটা হলেও দূর হবে। পাশাপাশি নগরের পরিবেশ স্বাস্থ্যসম্মত থাকবে।’

সিটি করপোরেশনের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা হানিফুর রহমান বলেন, ‘এরই মধ্যে মাদরাসা ও এতিমখানাগুলোর প্রধানদের সঙ্গে সিটি করপোরেশন মতবিনিময় সভা করেছে। সিটি করপোরেশনের এমন উদ্যোগে সংশ্লিষ্টরা খুবই খুশি হয়েছেন। মাদরাসাগুলো কোরবানির চমড়া সংগ্রহ করে (০১৭১১৫৭০৭২৭, ০১৭১৪৬০৯৮২৯) নম্বরে কল করলেই সিটি করপোরেশনের ট্রাক পৌঁছে যাবে মাদরাসা বা এতিমখানায়। সিসিকের শ্রমিকসহ এ কাজে অভিজ্ঞ শ্রমিকরা যথাযথ নিয়মে চামড়াগুলো সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করে রাখবেন।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এবার আমরা সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকায় যত্রতত্র চামড়ার হাট বসতে দেবো না। মাদরাসা ও এতিমখানাগুলোর চামড়া দক্ষিণ সুরমার পারাইরচকে সংরক্ষণ করা হবে লবণ দিয়ে। ফলে নগরের পরিবেশও রক্ষা হবে। নগরবাসী দুর্গন্ধ থেকেও বাঁচবেন। এবার কোরবানির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নগরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে জীবাণুমুক্ত করা হবে।’

  • সর্বশেষ - মিডিয়া