, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

ক্লাসের ফার্স্ট গার্ল ‘তনয়া’র জীবন কেন এমন হলো!

  বিনোদন ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ক্লাসের ফার্স্ট গার্ল ‘তনয়া’র জীবন কেন এমন হলো!

ক্লাসের ফার্স্ট গার্ল তনয়ার জীবন চলছিল স্বাভাবিক গতিতেই। ব্যস্ততা ছিল স্কুল, ক্লাস আর হোমওয়ার্ক নিয়ে। কিন্তু একদিন স্কুল ছুটির পর বাসার পরিবর্তে সে নিজেকে আবিষ্কার করে হোটেল রুমে! সেখান থেকে থানা হয়ে নিজের বাড়িতে। বাড়িতে ফিরলেও সেই বাবা-মায়ের কাছে আর ফেরা হয়নি, যারা এতদিন আদরে-ভালোবাসায় আগলে রেখেছিল তাকে। তনয়ার এই পাল্টে যাওয়া তার সমাজ-বাস্তবতা।

এমন এক নির্মম ও বাস্তব ঘটনা অবলম্বে ইমরাউল রাফাত নির্মাণ করেছেন ‘তনয়া’। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) রাত ৮টায় মুক্তি পাবে চরকি ফ্লিকটি।

এতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মাখনুন সুলতানা মাহিমা। এটিই হতে যাচ্ছে চরকিতে তার প্রথম কাজ। এতে তার বাবার চরিত্রে আছেন ফজলুর রহমান বাবু। আরও অভিনয় করেছেন এস এস জায়ান, শামীমা নাজনীনসহ অনেককে।

‘তনয়া’ নিয়ে নির্মাতা ইমরাউল রাফাত বলেন, ‘গল্পটা একটা আড্ডায় শোনা। পরিচিত একজনের কাছ থেকে। হঠাৎ করেই আমি পুরো গল্পটা শুনতে আগ্রহী হই। আমরা নরমালি যে ফরম্যাটে যাই, একটা গল্প লিখে রাখা, কোথাও প্রপোজাল হিসেবে জমা দেওয়া; এই গল্পের ক্ষেত্রে তেমন কিছুই হয়নি। গল্পটা মাথাতেই ছিল। বাবু ভাই ও মাহিমাসহ যারা অভিনয় করেছেন, সবাই দুর্দান্ত কাজ করেছেন। সেই সাথে আমার টিমের সবাই অনেক চেষ্টা করেছেন কাজটি ভালোভাবে শেষ করার। সেক্ষেত্রে ‘তনয়া’ আমার খুব কাছের একটা প্রডাকশন।”

অভিনেত্রী মাখনুন সুলতানা মাহিমা বলেন, ‘তনয়া-র গল্প শুনেই আমি খুব অবাক হয়েছি, এটা একটা সত্যি ঘটনা! একটা মেয়ের জীবনে এরকম অঘটনও ঘটতে পারে? বর্তমানে কোনও ঘটনা ঘটলে আমরা খুব সহজেই জাজ করে ফেলি। কিন্তু সেই ঘটনার সত্যটা আমরা কেউ যাচাই করতে যাই না। সেটাই উঠে আসবে এই গল্পে।’

  • সর্বশেষ - বিনোদন