, ২১ মাঘ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

রাবিতে হলের বাইরেও হচ্ছে ভর্তিচ্ছুদের থাকার ব্যবস্থা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

রাবিতে হলের বাইরেও হচ্ছে ভর্তিচ্ছুদের থাকার ব্যবস্থা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য বাইরেও থাকার ব্যবস্থা নিয়েছে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হল প্রশাসন। এতে বৈদ্যুতিক পাখাসহ থাকবে সুপেয় পানির ব্যবস্থা।

শুক্রবার (২২ জুলাই) বিকেলে থেকে হলের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে ফাঁকা জায়গায় প্যান্ডেল সাজানোর কাজ চলতে থাকে। হলের পাশাপাশি ওই প্যান্ডেলের ভেতর অবস্থান করবেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

হল প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, এবছর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু সংখ্যা বেশি হওয়ায় হল মসজিদ দ্বিতীয় তলা, হলের গেমস রুম, টিভি রুম, ডাইনিংয়ের একাংশ উন্মুক্ত রাখা হবে। এসব উন্মুক্ত রাখার পরও শিক্ষার্থীদের জায়গার সংকুলান না হাওয়ার আশঙ্কায় হলের বাইরে থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে থাকতে হলে অভিভাবকদের গুনতে হবে টাকা। সব বিষয় বিবেচনা করে হলের বাইরে ফাঁকা জায়গায় প্যান্ডেল সাজিয়ে ছাউনি দিয়ে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের থাকার ব্যবস্থা করছে হল প্রশাসন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, এবছর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অনেক বেশি পরীক্ষার্থী অংশ নিবে। বিষয়টি বিবেচনায় এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে হল প্রশাসনের অর্থ ব্যয় করা হয়নি। আমরা হল প্রশাসনের পক্ষ থেকে এমন উদ্যোগের জন্য এনআরবিসি ব্যাংকের কাছে সহযোগিতা চেয়েছিলাম। প্রতিষ্ঠানটির সহযোগিতার পরিপ্রেক্ষিতে এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

jagonews24

হল প্রাধ্যক্ষ আরও বলেন, ছাউনিটিতে ২০০ জন ভর্তিচ্ছু এবং অভিভাবক বৃষ্টির মধ্যেও থাকতে পারবেন। ছাউনির ভেতরে ২০টি স্টেজ করা হবে। প্রতিটি স্টেজে ১০ জন করে রাখা হবে। ছাউনিতে পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের সহযোগিতায় হলের ভেতরের ন্যায় বাতি, ফ্যান এবং সুপেয় পানিসহ সব সুবিধা দেওয়া হবে। দুপুরে বা রাতের খাবার ভর্তিচ্ছু এবং তাদের অভিভাবকরা হলের ডাইনিংয়েই খেতে পারবেন।

এমন সিদ্ধান্তের সাধুবাদ জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা তারেক নূর জাগো নিউজকে বলেন, ভর্তি পরীক্ষার সময় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা আবাসন সংকটে ভুগেন। এ সময় হল প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্ত প্রশংসার দাবি রাখে।

এদিকে রাবি ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ছাত্রাবাসে ফ্রিতে রাখা হলেও তাদের সঙ্গে আসা অভিভাবকদের থাকতে হলে দিতে হবে বলে জানিয়েছে রাজশাহী মহানগর মেস মালিক সমিতি। রাবি ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতিমূলক সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

টিনশেড বা আধা পাকা ছাত্রাবাসে প্রতিজন ৩০০ টাকা ও পাকা ভবনে প্রতিজন ৫০০ টাকা দিয়ে থাকতে পারবেন অভিভাবকরা। এদিকে এমন সিদ্ধান্তের ক্ষোভ প্রকাশ করে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন পোস্ট করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ২৫-২৭ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। ২৫ জুলাই ‘সি’ ইউনিট (বিজ্ঞান), ২৬ জুলাই ‘এ’ ইউনিট (মানবিক), ২৭ জুলাই ‘বি’ ইউনিট (বাণিজ্য) ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন চারটি শিফটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

  • সর্বশেষ - অন্যান্য