, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

২ ম্যাচ পরেই একাদশে মাহমুদউল্লাহ, পারভেজের অভিষেক

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

২ ম্যাচ পরেই একাদশে মাহমুদউল্লাহ, পারভেজের অভিষেক

হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে মঙ্গলবার (২ আগস্ট)  স্বাগতিক জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি বাংলাদেশ। টস হেরে ফিল্ডিং করবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ নেমেছে তিন পরিবর্তন নিয়ে। একাদশে এসেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অভিষেক হচ্ছে পারভেজ হোসেন ইমনের। এ ছাড়া শরিফুল ইসলামের পরিবর্তে খেলবেন স্পিনার নাসুম আহমেদ। বাংলাদেশ একাদশ সাজিয়েছে ২ পেসার নিয়ে। 

বাংলাদেশ একাদশ 

লিটন দাস, এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, পারভেজ হোসেন ইমন, মোসাদ্দেক হোসেন (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নাসুম আহমেদ, শেখ মেহেদী হাসান, হাসান মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান।

অভিষেক পারভেজের

পাকিস্তানের বিপক্ষে দলে ডাক পেলেও একদাশে সুযোগ পাননি। অবশেষে সেই সুযোগ এলো জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে, টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে। মুনিম শাহরিয়ারের পরিবর্তে তিনি খেলবেন আজ। বাংলাদেশের ৭৬তম ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হলো ইমনের। 

বাদ পড়া মাহমুদউল্লাহ ফিরলেন ২ ম্যাচ পরেই

জিম্বাবুয়ে সফরের আগে দেশের ক্রিকেটের আলোচ্য বিষয় ছিল মাহমুদউল্লাহর অধিনায়কত্ব। জল্পনাকে সত্যি করে নেতৃত্ব হারিয়েছেন, সঙ্গে জায়গাও। আবার নতুন অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহানের ইনজুরি তাকে ডাকা হয় দলে এবং ২ ম্যাচ না যেতেই সুযোগ পেলেন একাদশেও। তবে দলে ফিরলেও নেতৃত্বের দায়িত্ব পাননি অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। 

বাংলাদেশের নবম টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মোসাদ্দেক 

জিম্বাবুয়ে সফরের আগে সোহান নেতৃত্ব পাওয়ার পর কয়েকদিন সময় পেয়েছিলেন। কিন্তু মোসাদ্দেক তো তাও পাচ্ছেন না। একদিনেরও কম সময়ের নোটিশে তিনি হতে যাচ্ছেন বাংলাদেশের নবম টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। ঘরোয়া ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে অবশ্য অভিজ্ঞতা আছে বেশ। সবশেষ বিসিএলে জিতিয়েছিলেন ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনকে। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ভিন্ন চ্যালেঞ্জ, মোসাদ্দেককে সেটি সামলে নিতে হবে। 

অলিখিত ফাইনাল

সিরিজে দুই ম্যাচ শেষে সমতা ১-১ এ। এই ম্যাচটি তাই দুই দলের জন্যই ফাইনাল। বাংলাদেশের বোলিং কোচ অ্যালান ডোনাল্ড সোমবার বলছেন এমনটাই। তিনি বলেন, 'আমি ব্যক্তিগতভাবে পারফরম্যান্স খারাপ করার কারণে কখনোই দোষ দেইনি বা ধরি না। গুরুত্বপূর্ণ হলো ওই অবস্থা থেকেই কীভাবে আপনি ফিরে আসেন? যেটা আমরা গত ম্যাচে করে দেখিয়েছি। তো আগামীকাল ফাইনাল, আমাদের আবারও সেরাটা দিতে হবে।' 

'আমরা যেভাবে দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাট করেছি এবং সঠিকভাবে প্রমাণ করেছি যে গত ম্যাচটি পরিশ্রম দিয়ে আমরা নিয়ন্ত্রণে নিয়েছি। তো শেষ ম্যাচটি ফাইনাল, প্রথম ম্যাচে যে পিচে হয়েছে সেখানেই হবে। আমরা এই ম্যাচের অপেক্ষায় আছি'- আরও যোগ করেন ডোনাল্ড। 

দাপুটে জয়ে সমতা 

দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ উইকেটের বড় জয়ে সিরিজে সমতা এনেছে  বাংলাদেশ। ৮১ রানে তিন উইকেট পতনের পর আর উইকেট পড়তে দেননি আফিফ-শান্ত। দুজনে ৪৮ বলে ৫৫ রানের জুটি গড়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। আফিফ ৩০ ও শান্ত ১৯ রানে অপরাজিত ছিলেন। প্রথম ম্যাচ ১৭ রানে হারলেও এই ম্যাচ দাপট দেখিয়ে জিতেছে বাংলাদেশ। মোসাদ্দেক হোসেনের ফাইফারে ১৩৫ রানে থামে জিম্বাবুয়ে। রাজা সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন। রান তাড়া করতে নেমে ১৫ বল হাতে রেখে ৩ উইকেট হারিয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন লিটন। তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা হওয়াতে শেষ ম্যাচটি রূপ নিলো অলিখিত ফাইনালে। ২ আগস্ট বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে অনুষ্ঠিত হবে এটি।

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা