, ১১ আশ্বিন ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

জ্বালানি তেলের আগুন কাঁচাবাজারে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

জ্বালানি তেলের আগুন কাঁচাবাজারে

জ্বালানি তেলের দামবৃদ্ধির প্রভাব পড়েছে কাঁচাবাজারে। একদিনের ব্যবধানে বাজারে প্রতিটি পণ্যের দাম কেজিতে ৫ টাকা থেকে ২০ টাকা করে বেড়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, তেলের দাম বাড়ায় পরিবহন খরচ বেড়েছে। যার সরাসরি প্রভাব পড়েছে বাজারে।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সবজির মধ্যে সবচেয়ে কম দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁপে। পাঁচ টাকা বেড়ে আজকের বাজারে এক কেজি পেঁপের দাম ৩০ টাকা। ৩৫ টাকা কেজির পটল ও ঢেঁড়স বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়। অর্থাৎ ১৫ টাকা বেড়েছে। ৪৫ টাকার শশা বিক্রি হচ্ছে ৫৫-৬০ টাকা কেজিতে।

৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হওয়া চিচিঙ্গা, ধুন্দল, কাঁকরোল ও কচুর মুখি আজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। একই দামে বিক্রি হচ্ছে রববটি। ৬০-৭০ টাকার উস্তা-করলা, বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়।

dhaka post

বাজারে নতুন আসা শীতকালীন সবজি শিম ২০০ থেকে ২৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও টমেটো ১২০ টাকা ও প্রতিকেজি গাজরের দাম ১৪০ টাকা।

বাড়তি দামের ভিড়েও রয়েছে সুখবর। কমতে শুরু করেছে কাঁচা মরিচের দাম। ২৮০ টাকা থেকে ৪০ টাকা কমে আজ বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকায়।

অন্যদিকে লাউ ৫০ টাকা, বাঁধাকপি ৪০ টাকা ও চাল কুমড়া ৪০ টাকা পিস হিসেবে এবং মিষ্টি কুমড়ার ফালি ৩০ টাকা, কাঁচা কলা ৩০ টাকা ও লেবু ১৫-২০ টাকা হালিতে বিক্রি হচ্ছে।

শাকের দামও ৫ থেকে ১০ টাকা বেড়েছে। ১০ টাকা আটির লাল ও পালং শাক বিক্রি হচ্ছে ১৫ টাকায়। আর ৩০ টাকার লাউ শাক বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকায়।

dhaka post

শান্তিনগর কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী মহসিন বলেন, ২০ টাকা কেজির ঢেঁড়স আজ কিনেছি ৩৫ টাকা করে। বিক্রি করছি ৫০ টাকায়। খরচ বেশি হওয়ায় দাম কিছুটা বেশি।

বাড্ডার ব্যবসায়ী আশিকুর রহমান বলেন, আজ কারওয়ান বাজারে পণ্য কিনতে গিয়ে আমি অবাক। সবকিছুর দাম ৫ থেকে ১০ টাকা বেশি। দাম বেশি থাকায় এক পাল্লা-দুই পাল্লা করে মাল এনেছি। কারণ, দাম বেশি হলে বিক্রি কম হয়।

সানবির রুপল নামে এক ক্রেতা বলেন, সবজির দামে আগুন। সব কিছুর দাম বেড়েছে। ৫০০ টাকার সবজি কিনলাম ব্যাগেরও দরকার হলো না।

কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ী শাহিনুল করিম বলেন, আমার এখানে বগুড়া থেকে ট্রাকে সবজি আসে। ট্রাকে নতুন করে খরচ বেড়েছে ৩ হাজার ৬০ টাকা। পরিবহন খরচের কারণে পণ্যের দাম বেড়েছে।

উত্তর অঞ্চলের ট্রাক চালক আশিকুল ইসলাম বলেন, সাড়ে তিন টন ক্ষমতার একটি ট্রাক ঢাকায় আসা-যাওয়া করতে খরচ হয় ৯০ লিটার তেল। যার বাজার মূল্য ১০ হাজার ২৬০ টাকা। আগের তুলনায় ৩ হাজার বেশি। আর বাড়তি ভাড়ার প্রভাবই পড়েছে কাঁচাবাজারে।

  • সর্বশেষ - অর্থ-বাণিজ্য