, ১১ আশ্বিন ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

এশিয়া কাপে ডাক পাচ্ছেন সৌম্য!

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

এশিয়া কাপে ডাক পাচ্ছেন সৌম্য!

বিসিবি থেকে কোনোরকম আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি। নীতি নির্ধারকদের কেউ অধিনায়ক হিসেবে কারও নামও উল্লেখ করেননি। তবে বাস্তবতা হলো এ মুহুর্তে বিসিবির কাছে সাকিব আল হাসানই সম্ভাব্য সেরা পছন্দ। ধরেই নেওয়া যায়, এশিয়া কাপে সাকিবের নেতৃত্বে মহাদেশীয় ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের আসরে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

সব কিছু ঠিক থাকলে হয়তো শনিবার দল চূড়ান্ত হয়ে যাবে। এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের বেধে দেয়া সময় অনুযায়ী রোববার (১৪ আগস্ট) দল ঘোষণার শেষ দিন। দল ঘোষণার আগে টিম ম্যানেজমেন্টের দুই দফা বৈঠকে বসার কথা শোনা যাচ্ছে। শনিবার সকালে বিসিবিতে তিন নির্বাচক, ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি চেয়ারম্যান এবং টিম ডিরেক্টরের যৌথ সভা নিশ্চিত।

তার আগে আজ শুক্রবার বিকেলেও এক দফা বসতে পারেন নির্বাচকরা। আজকের বসা নিয়ে অবশ্য দুরকম কথা শোনা গেছে। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, আমরা জুমার পরে মিরপুরে বসবো। আরেক নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমনের কথা, আজকের বসাটা ঠিক নিশ্চিত নয়। তবে আগামীকাল সকালে আমরা বসবো।

সাকিব ফিরছেন, হয়তো অধিনায়ক হয়েই। এটি যেমন বড় খবর, পাশাপাশি আরও একটি বড় খবরও মিলেছে বৃহস্পতিবার। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সাংবাদিকদের জানিয়ে দিয়েছেন, জিম্বাবুয়ে সফরে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের দায়িত্বে থাকা নুরুল হাসান সোহান, লিটন দাস ও মিডল অর্ডার ইয়াসির আলী রাব্বির এশিয়া কাপ খেলার সম্ভাবনা নেই।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও জাগো নিউজকে একই কথা বলেছেন। তার মানে কী দাড়ালো? একাদশের অতি অপরিহার্য সদস্য লিটন ও সোহান নেই। তাদের সঙ্গে স্কোয়াডে থাকার মতো ইয়াসির রাব্বির থাকার সম্ভাবনাও শূন্য। তাহলে এই তিন জনের জায়গায় দলে আসবেন কারা?

জিম্বাবুয়ে সফর করে আসা টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে বহর থেকেই এদের শূন্যস্থান পূরণ করা হবে? নাকি বাইরে থেকে কাউকে নেওয়া হবে? তা নিয়ে জল্পনা কল্পনার শেষ নেই। এরই মধ্যে সৌম্য সরকারের নাম বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে। সঙ্গে সাব্বির রহমানের কথাও শোনা যাচ্ছে।

সত্যিই কি তারা অন্তর্ভুক্ত হবেন? এ প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু অবশ্য নির্দিষ্ট কারও নাম উল্লেখ করেননি। তবে বলেছেন, ‘বিকল্প খুঁজতে জিম্বাবুয়ে সফরের বাইরে থেকে ক্রিকেটার নিতেই হবে।’

প্রধান নির্বাচকের কথায় পরিষ্কার, শুধু জিম্বাবুয়ে সফরে দলে থাকাদের ভেতর থেকেই বিকল্প খোঁজা হবে না। বাইরে থেকেও কারও অন্তর্ভুক্তির সম্ভাবনা রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, সেখানে সৌম্যর থাকার সম্ভাবনা খুব বেশি। ওপেনিংয়ে ফর্মে থাকা লিটনের জায়গায় সৌম্যর পূর্ব অভিজ্ঞতা ও সাহসী ব্যাট চালনা বিবেচনায় আসছে। এ বাঁহাতি টপ অর্ডারের অন্তর্ভুক্তি অনেকটাই নিশ্চিত বলে জানা গেছে।

এর বাইরে শোনা গেছে, সাকিব আল হাসানের পছন্দ সাব্বির। তবে সেটা নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্টের কতটা মনঃপুত হবে, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। কারণ সাব্বিরের ঘরোয়া ক্রিকেটে সাম্প্রতিক সময়ে উল্লেখযোগ্য পারফরম্যান্স নেই।

তবে সোহানের জায়গায় একজন উইকেটরক্ষক ব্যাটারের অন্তর্ভুক্তি ঘটতে পারে। সেক্ষেত্রে জাকির হাসান বা জাকের আলি অনিককে দেখা গেলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা