, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

পুলিশ পরিচয়ে দুই পর্যটককে অপহরণ, ৪ যুবক গ্রেফতার

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

পুলিশ পরিচয়ে দুই পর্যটককে অপহরণ, ৪ যুবক গ্রেফতার

কক্সবাজারে দুই পর্যটককে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে চারজনকে গ্রেফতার করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) দিনভর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- কক্সবাজার সদর উপজেলার পিএমখালির মৃত আবদুর রহমানের ছেলে মো. রুবেল (৩১), ঈদগাঁওয়ে মৃত শামসুদ্দিনের ছেলে মো. সালাউদ্দিন (৩৫), ঈদগাঁওয়ের নুর আজিজের ছেলে আশিক (২৮) ও মৃত মনসুর আলীর ছেলে মো. মোবারক আলী (৩০)।

পরে বুধবার রাতে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে ও দুজনকে পলাতক দেখিয়ে মামলা করেন চট্টগ্রামের ডিস ব্যবসায়ী মো. নুরুল আইয়ুব (৪০)।

পুলিশ জানায়, নুরুল আইয়ুব চৌধুরী ও তার বেয়াই মো. নেওয়াজ নাছির দুটি মোটরসাইকেল নিয়ে ৪ সেপ্টেম্বর ভোর সাড়ে ৫টায় কলাতলী সমুদ্র সেকতে যান। সাড়ে ৮টায় কলাতলীর আলফা ওয়েব গেস্ট হাউজে কক্ষ ভাড়া নেন। পরে সকাল ১০টায় নুরুল আইয়ুব ওই হোটেলের ৬ষ্ঠ তলার চায়নারোজ স্পা সেন্টারে যান। সেখানে স্পা কর্মী রিয়া তার পেশা ও আয় জেনে নেন। পরে তিনি হোটেলের ২০৩ নম্বর কক্ষে অবস্থান করেন। বিকেল ৪টার দিকে তারা ফের মোটরসাইকেল নিয়ে চট্টগ্রামের পথে রওয়ানা দেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে আইয়ুব ঈদগাঁও বাজারে পৌঁছালে একটি মোটরসাইকেলে দুজন যুবক পুলিশ পরিচয় দিয়ে গতিরোধ করেন। ২০-২৫ মিনিট পর আরেকটি মোটরসাইকেলে করে দুজন যুবক ঘটনাস্থলে পৌঁছে। তারা পর্যটক নুরুল আইয়ুবের বেয়াই এক্সিডেন্ট করেছে বলে তাকে তুলে নেয়। সে সময় ওই পর্যটকের মোটরসাইকেল অন্য আরেকজন নিয়ে যান। পরে রাত ৯টার দিকে হোটেল-মোটেল জোনের সি-পার্ল ওয়ান হোটেলের একটি কক্ষে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবিতে মারধর শুরু করেন। সেখানে বাদীর বেয়াই নাছিরও বাঁধা অবস্থায় দেখেন ভিকটিম।

নির্যাতন সইতে না পেরে নুরুল আইয়ুব স্ত্রী, ভাগনে ও বন্ধু মিলে চারটি বিকাশ নম্বরে এক লাখ ৯০ হাজার টাকা পাঠায়। একই সময়ে তার স্ত্রী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে। পরে পুলিশ সি-পার্ল ওয়ান থেকে দুই পর্যটককে উদ্ধার করে হোটেল কর্মচারী রুবেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে একই হোটেলের কর্মচারী সালাউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়।

ট্যুরিস্ট পুলিশের কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম বলেন, অপহরণের সঙ্গে জড়িত দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এরা ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে স্বীকার করেছে।

  • সর্বশেষ - সারাদেশ