, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

রংপুরে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

রংপুরে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় বিএনপি নেতা-কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় ৫০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও দেড় হাজার জনকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ। আসামিদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা দেওয়াসহ পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগ আনা হয়েছে। 

শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গঙ্গাচড়া মডেল থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই)  বুলবুল আহমেদ বাদী হয়ে মামলাটি করেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

রংপুরের পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।  

নারায়ণগঞ্জে যুবদল নেতা শাওন হত্যাসহ দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে গতকাল বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গঙ্গাচড়া বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা। 

মিছিলটি উপজেলার ডাক বাংলোর দিকে যেতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। একপর্যায়ে মিছিলের পেছন থেকে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হলে পুলিশ লাঠিচার্জসহ টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে গঙ্গাচড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল হোসেনসহ পুলিশের ২০ জন সদস্য ছাড়াও অর্ধশত মানুষ আহত হন।

গঙ্গচড়া মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. মমতাজুল হক বলেন, বেলা ১১টার দিকে রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি আবদুল আলীম মাহমুদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আহত পুলিশ সদস্যদের খোঁজখবর নিয়েছেন। বর্তমানে গঙ্গাচড়ায় স্বাভাবিক পরিস্থিত বিরাজ করছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি। 

এদিকে বিএনপি-পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার পর থেকে ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে উপজেলা শহরে। শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত গঙ্গাচড়া বাজারের বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ ছিল। সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে কিছু দোকানপাট খুলতে শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে পুলিশি টহল চোখে পড়ার মতো ছিল।

রংপুর জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোকাররম হোসেন সুজন দাবি করেন, বৃহস্পতিবার পুলিশের লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেটে আমাদের ১৫০ জন সদস্য এ পর্যন্ত আহত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত পুলিশের ভয়ে অনেকেই বাড়িছাড়া রয়েছেন। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ঘটনার দিন সন্ধ্যায় উপজেলা বিএনপির কার্যালয় ভাঙচুর করেছেন। 

অন্যদিকে বিএনপি ও ছাত্রদলের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ও নৈরাজ্য, পুলিশ ও সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে শুক্রবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল করেছে গঙ্গাচড়া উপজেলা ছাত্রলীগ। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগসহ জেলা ছাত্রলীগের নেতারাও অংশ নেন।

  • সর্বশেষ - সারাদেশ