, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

প্রিন্স ও প্রিন্সেস অব ওয়েলস হলেন উইলিয়াম-কেট

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

  প্রকাশ : 

প্রিন্স ও প্রিন্সেস অব ওয়েলস হলেন উইলিয়াম-কেট

যুক্তরাজ্যের রাজা তৃতীয় চার্লস তার জেষ্ঠ্যপুত্র উইলিয়াম ও পুত্রবধু কেট মিডলটনকে প্রিন্স ও প্রিন্সেস অব ওয়েলস হিসেবে ঘোষণা করেছেন। এক সময় এই পদবি ছিল চার্লস ও তার প্রথম স্ত্রী ডায়ানার।

যুক্তরাজ্যের সিংহাসনের প্রথম উত্তরাধিকারীর জন্যই সাধরণ প্রিন্স এবং প্রিন্সেস অব ওয়েলস পদবীটি বরাদ্দ থাকে। ১৯৬৯ সালে লন্ডনের বাকিংহাম প্যালেসে নিজের জেষ্ঠ্য সন্তান চার্লসকে এই পদবী দিয়েছিলেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ।

তার ১৯৮১ সালে চার্লস লেডি ডায়ানার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলে প্রিন্সের স্ত্রী হিসেবে ডায়ানা প্রিন্সেস অব ওয়েলস পদবী লাভ করেন।

১৯৯৭ সালে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে এই দম্পতির। তারপর চার্লস প্রিন্স অব ওয়েলস থাকলেও প্রিন্সেস অব ওয়েলস পদবীটি আর কাউকে দেওয়া হয়নি।

গত বৃহস্পতিবার ৯৬ বছর বয়সে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ মারা যান। মায়ের মৃত্যুর পর উত্তরাধিকারী হিসেবে রাজা হন চার্লস।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে নতুন রাজা বলেন, ‘নতুন প্রিন্স ও প্রিন্সেস অব ওয়েলস আমাদের জাতীয় বিষয়গুলোয় অনুপ্রেরণা ও নেতৃত্ব দিয়ে যাবে। প্রান্তিক অবস্থানে থাকা নাগরিকদের মূলধারায় আনতে সাহায্য করে যাবে, যেখানে গুরুত্বপূর্ণ সাহায্য দেওয়া যেতে পারে।’

তৃতীয় চার্লস রাজা হওয়ার পর এখন ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারীদের ক্রমতালিকার এক নম্বরে রয়েছেন প্রিন্স উইলিয়াম। চার্লস-ডায়ানা দম্পতির এই জেষ্ঠ্য সন্তানের জন্ম ১৯৮২ সালে।

সিংহাসনের উত্তরাধিকারের ক্রমতালিকার দুই নম্বরে রয়েছে প্রিন্স উইলিয়ামের ছেলে প্রিন্স জর্জ। তার জন্ম ২০১৩ সালে। তিন নম্বরে রয়েছে প্রিন্স উইলিয়ামের মেয়ে প্রিন্সেস শার্লট। তার জন্ম ২০১৫ সালে।

সূত্র : রয়টার্স

  • সর্বশেষ - আন্তর্জাতিক