, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

মুনাফা বেড়েছে আড়াই গুণ, ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেবে এপেক্স ট্যানারি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

মুনাফা বেড়েছে আড়াই গুণ, ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেবে এপেক্স ট্যানারি

গত বছরের তুলনায় প্রায় আড়াই গুণ মুনাফা বেড়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত চামড়া খাতের কোম্পানি এপেক্স ট্যানারি লিমিটেডের। সেখান থেকে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ অর্থাৎ শেয়ার প্রতি এক টাকা করে নগদ লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ। যা মুনাফার চেয়ে ১৮ শতাংশ বেশি।

রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, জুলাই ২০২১ থেকে ৩০ জুন ২০২২ সালে এপেক্স ট্যানারির প্রকৃত মুনাফা হয়েছে ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা। আগের বছরের চেয়ে ৭৩ লাখ টাকা বেশি। শতাংশের হিসেবে প্রায় আড়াই শতাংশ বেশি। এর আগের বছর ২০২০-২০২১ অর্থবছরের মুনাফা হয়েছিল মাত্র ৫২ লাখ টাকা।

সে হিসাবে ২০২১-২২ অর্থবছরে এপেক্স ট্যানারির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) দাঁড়িয়েছে ৮২ পয়সায়। কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ ৩০৩তম সভায় বিদায়ী বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কোম্পানিটির ১ কোটি ৫২ লাখ ৪০ হাজার শেয়ারহোল্ডারদের দেড় কোটি টাকার বেশি লভ্যাংশ দিতে হবে।

লভ্যাংশের অতিরিক্ত ২৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা কোম্পানির আগের বছরের রিজার্ভ থেকে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেনে কোম্পানি সচিব সুশান্ত কুমার পল।

তিনি বলেন, ২০২১-২২ অর্থবছরে আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশের দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এর আগের বছরও ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেওয়া হয়েছিল। সে বছর কোম্পানির ইপিএস ছিল ৩৪ পয়সা।

পর্ষদ ঘোষিত লভ্যাংশ শেয়ারহোল্ডারদের সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) দিন নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ নভেম্বর। আর রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৩ অক্টোবর।

শতভাগ রপ্তানিমুখী কোম্পানিটি ১৯৮৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ২০২১-২২ অর্থবছরের কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৬৩ টাকা ৩৯ পয়সায়। আগের বছরে ছিল ৬৩ টাকা ১৭ পয়সায়।

কোম্পানিটির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালকদের হাতে রয়েছে ৩০ দশমিক ৪০ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে রয়েছে ২৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে রয়েছে ৩৯ দশমিক ৬৭ শতাংশ শেয়ার।

  • সর্বশেষ - অর্থ-বাণিজ্য