, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

চুরি ঠেকাতে ভ্যানের ওপর রাত কাটান চালকরা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

চুরি ঠেকাতে ভ্যানের ওপর রাত কাটান চালকরা

পাবনার আতাইকুলা থানার বামনডাঙ্গা গ্রামে একের পর এক ইঞ্জিনচালিত ভ্যান চুরির ফলে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন চালকরা। চুরি ঠেকাতে অনেকে ভ্যানের ওপর শুয়ে রাত কাটাতে হচ্ছে। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েও কোনো সুফল পাননি চালকরা।

বামনডাঙ্গা গ্রামের বাবু আলী জানায়, ভ্যানটি ছিল তার একমাত্র আয়ের উৎস। এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে ৬০ হাজার টাকায় ভ্যানটি কিনি। সে কিস্তি এখনো শোধ হয়নি। কিন্তু এর আগেই বাড়ির উঠান থেকে চুরি হয়ে গেছে। ভ্যানটি চুরি যাওয়ায় আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে।

jagonews24

বাবু আলীর স্ত্রী বলেন, দুটি বাচ্চা নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছি। ভ্যানটি ছাড়া আয়ের কোনো পথ নেই। স্বামী কৃষিকাজ ছাড়া অন্য কোনো কাজও করতে পারেন না। এখন সংসার চালাবেন কী দিয়ে আর এনজিওর কিস্তি শোধ কিভাবে সে চিন্তায় অস্থির।

বাবু আলী জানান, থানায় দুদিন ঘুরে গত সপ্তাহে অভিযোগ দিয়েছি। থানা থেকে জানানো হয় খোঁজখবর পেলে জানানো হবে। এখন ভ্যান ফিরে পাওয়ার আশা ছেড়ে দিয়েছি।

তিনি আর জানান, ক্ষেতের কাজ করতে পারলেও অন্য কাজ তিনি জানেন না। এখন তেমন কোনো কাজ নেই। তাই বসে থাকতে হচ্ছে। বাড়ির সওদাপাতি ঠিকমত করতে পারছি না। তার হাতে টাকা নেই বলে দোকানদাররাও বাকি দিতে চাইছে না।

বামনডাঙ্গা গ্রামের ভ্যানচালক জাকির হোসেন জানান, আমার ভ্যানটিও কিছুদিন আগে একইভাবে চুরি হয়ে গেছে। চোররা বিশেষ কায়দায় তালা ভেঙে ভ্যান গাড়িটি নিয়ে গেছে। এখন ৪০ হাজার টাকায় একটি পুরানা ভ্যান কিনে চালাচ্ছি।

jagonews24

একই গ্রামের অপু মিয়া জানান, ভ্যান গাড়ি চালিয়ে সংসারে যোগান দেন। তার গাড়িটিও চোররা কয়েকদিন আগে তালা ভেঙে নিয়ে গেছে। চোররা বাড়ির সব ঘরে শেকল আটকে রেখেছিল। তারা টের পেলেও বের হতে পারেননি। পরে ঘর থেকে বের হতে পারলেও ততক্ষণে চোর ভ্যান গাড়ি চালিয়ে মাহসড়কে উঠে চলে যায়।

ওই গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুল হান্নান প্রধান জানান, তালা ভেঙে তার ভ্যানগাড়িটি চোররা নিয়ে যায়। তিনি আবার ৪০ হাজার টাকা দিয়ে একটি পুরানা ভ্যান গাড়ি চালিয়ে সংসার চালাচ্ছেন।
তিনি বলেন, সারাদিন কাজ করে রাতে একটু আরামে ঘুমাবো তারও উপায় নেই। সারাদিন কাজ করার পরে রাতে আবার ঘণ্টায় ঘণ্টায় উঠে দেখেন দেখতে হয় গাড়ি আছে না চোর নিয়ে গেছে।

বামনডাঙ্গা গ্রামের ভ্যানচালক কিতাই আকন্দ জানান, গাড়িটি বাড়ির মধ্যে খুপরি ঘরে তালা দিয়ে রাখেন। এরপর তিনি ভ্যান গাড়ির ওপর শুয়ে রাত কাটান। যাতে চোর তার ভ্যান গাড়িটি নিয়ে যেতে না পারে।

এ বিষয়ে আতাইকুলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, এক ভ্যানচালকের লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। চোর শনাক্ত ও গাড়িটি উদ্ধারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

  • সর্বশেষ - সারাদেশ