, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

মুজতবা আলীর জন্ম ও যতীন্দ্র নাথের প্রয়াণ

  ফিচার ডেস্ক

  প্রকাশ : 

মুজতবা আলীর জন্ম ও যতীন্দ্র নাথের প্রয়াণ

মানুষ ইতিহাস আশ্রিত। অতীত হাতড়েই মানুষ এগোয় ভবিষ্যৎ পানে। ইতিহাস আমাদের আধেয়। জীবনের পথপরিক্রমার অর্জন-বিসর্জন, জয়-পরাজয়, আবিষ্কার-উদ্ভাবন, রাজনীতি-অর্থনীতি-সমাজনীতি একসময় রূপ নেয় ইতিহাসে। সেই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনা স্মরণ করাতেই জাগো নিউজের বিশেষ আয়োজন আজকের এই দিনে।

১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার। ২৯ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঘটনা
১১২৫- ডিউক লোথারিয়াস জার্মানির রাজা হিসেবে অভিষিক্ত হন।
১৬০৯- অভিযাত্রী হেনরী হাডসন আমেরিকার নিউ জার্সিতে একটি নদী খুঁজে পান। পরবর্তীতে নদীটির নাম রাখা হয় হাডসন নদী।
১৭৮৮- নিউ ইয়র্ক সিটি আমেরিকার প্রথম রাজধানী হয়।
১৯৫৯- চাঁদের উদ্দেশে রাশিয়ার লুনিক-২ নামক রকেট উৎক্ষেপণ করা হয়।
১৯৯৫- শ্রীলঙ্কায় এক বিমান দুর্ঘটনায় ৭৫ জন নিহত হন।
২০০৮- দিল্লিতে এক সিরিজ বোমা হামলায় ৩০ নিহত ও ১৩০ জন আহত হয়।

জন্ম
১৬৯৪- বাঙালি শ্রুতিধর ও পণ্ডিত জগন্নাথ তর্কপঞ্চানন।
১৮৮৬- নোবেলজয়ী ইংরেজ রসায়নবিদ রবার্ট রবিনসন।
১৯০৪- বাংলাদেশি বাঙালি সাহিত্যিক সৈয়দ মুজতবা আলী। ব্রিটিশ ভারতে আসামের অন্তর্ভুক্ত সিলেটের করিমগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। বিশ্বভারতী থেকে সংস্কৃত, ইংরেজি, আরবি, উর্দু, ফার্সি, হিন্দি, গুজরাটি, ফরাসি, জার্মান ও ইতালীয়সহ ১৫টি ভাষায় শিক্ষা লাভ করে ১৯২৬ সালে বি.এ. ডিগ্রি অর্জন করেন। শান্তিনিকেতনে পড়ার সময় সেখানের বিশ্বভারতী নামের হস্তলিখিত ম্যাগাজিনে লিখতেন। পরবর্তীতে তিনি ‘সত্যপীর’, ‘ওমর খৈয়াম’, ‘টেকচাঁদ’, ‘প্রিয়দর্শী’ প্রভৃতি ছদ্মনামে দেশ, আনন্দবাজার, বসুমতী, সত্যযুগ, মোহাম্মদীসহ বিভিন্ন পত্রিকায় কলাম লিখেন। তার বহু দেশ ভ্রমণের অভিজ্ঞতা থেকে লিখেছেন ভ্রমণলিপি। এছাড়াও লিখেছেন ছোটগল্প, উপন্যাস, রম্যরচনা। পেয়েছেন নরসিংহ দাস পুরস্কার,আনন্দ পুরস্কার ও একুশে পদক (মরণোত্তর)।
১৯১৬- ওয়েল্সীয় সাহিত্যিক রুয়াল দাল।
১৯৬৯- অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার ও হ্যাম্পশায়ারের অধিনায়ক শেন ওয়ার্ন।

মৃত্যু
১৮৭২- জার্মানির বস্তুবাদী দার্শনিক লুডউইগ ফয়েরবাক।
১৯১০- বিশিষ্ট বাঙালি কবি এবং সুরকার রজনীকান্ত সেন।
১৯২৯- ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের শহীদ বিপ্লবী যতীন্দ্র নাথ দাস। জন্ম কলকাতায়। ১৯২০ সালে ভবানীপুর মিত্র ইন্সটিটিউশন থেকে ম্যাট্রিক পাস করে কংগ্রেসের সদস্য হয়ে অসহযোগ আন্দোলনে যোগ দেন। ছিলেন একজন ভারতীয় মুক্তিযোদ্ধা এবং বিপ্লবী ভগৎ সিংয়ের সহকর্মী। আত্মত্যাগী, সাহসী মানুষটি লাহোর ষড়যন্ত্র মামলায় অভিযুক্ত হয়ে ১৯২৯ সালের ১৪ জুন গ্রেপ্তার হন। জেলবন্দিদের অধিকারের দাবিতে ওই বছরই ১৩ জুলাই অনশন শুরু করেন তিনি। ৬৩ দিন অনশনের পর মাত্র ২৪ বছর বয়সে জেলেই মৃত্যু হয় তার। স্বাধীনতার পর তার সম্মানে কলকাতা মেট্রোর হাজরা অঞ্চলের মেট্রো স্টেশনটির নামকরণ করা হয় যতীন দাস পার্ক মেট্রো স্টেশন।
২০১৩- বাংলা চলচ্চিত্রের ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা’ খ্যাত কিংবদন্তি অভিনেতা আনোয়ার হোসেন।

  • সর্বশেষ - ফিচার