ময়মনসিংহ, , ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ অনলাইন সংস্করণ

পুঁচকে ‘কেজরিওয়াল’ টুইটারে ভাইরাল

  অনলাইন ডেস্ক

  প্রকাশ : 

পুঁচকে ‘কেজরিওয়াল’ টুইটারে ভাইরাল

কেজরিওয়ালের মতো ম্যানারিজিমের কারণে দ্রুত সবার মন কেড়েছে এই শিশু। ছবি: টুইটাররাজনীতির ময়দানে ফের জয়ী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। নাগরিকত্ব আইন ও দেশজুড়ে বিক্ষোভের মধ্য গতকাল মঙ্গলবার সারা দিনের খবর ছিল একটাই—অরবিন্দ কেজরিওয়াল। গত পাঁচ বছরে নানা চড়াই-উতরাইয়ের পর অবশেষে বাজিমাত করেন তিনি। সাদামাটা চেহারার ‘মাফলারম্যান’–এর মুখে ছিল শুধুই চওড়া হাসি। তবে ভোটের ফলের দিনে কেজরিওয়ালকে ছাপিয়ে গেল অন্য একটি মুখ। তাকে সবাই বলছেন ‘বেবি কেজরিওয়াল’, কেউ কেউ বলছেন ‘মাফলারম্যান’।

গতকাল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মন জিতে নিয়েছে খুদে কেজরিওয়াল। আম আদমি পার্টির (এএপি) সদর দপ্তরে দেখা মিলল ‘বেবি কেজরিওয়ালের’। টুইটারে এএপির সদস্যরা তাঁকে মাফলারম্যান আখ্যা দিয়েছেন।

‘খুদে কেজরিওয়াল’-এর সাজে আয়ান তোমার। ছবি: টুইটার‘খুদে কেজরিওয়াল’-এর সাজে আয়ান তোমার। ছবি: টুইটার


হিন্দুস্তান টাইমস ও এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ট্রেডমার্ক গলার মাফলার আর মাথার ওই বিশেষ টুপি। দিল্লির ভোটে জয়ের দিনে রাস্তায় রাস্তায় মিষ্টি বিতরণ আর উৎসব হয়েছে। এ উৎসবে বাদ যায়নি কেউ। কিন্তু নজর কেড়েছে এক খুদে ‘কেজরিওয়াল’। চোখে চশমা, গলায় মাফলার, মাথায় এএপির টুপি পরে ছোট্ট কেজরিওয়াল সেজেছে ওই শিশু। সঙ্গে আবার সুন্দর করে এঁকেছে গোঁফও। এএপির সদর দপ্তরে দেখা মিলল এই বেবি কেজরিওয়ালের। টুইটারে এএপির সদস্যরা তাঁকে মাফলারম্যান আখ্যা দিয়েছেন। দিল্লির জয়ী মুখ্যমন্ত্রীকে নকল করে মেরুন রঙের সোয়েটারও পরেছিল সে। সেই সঙ্গে কেজরিওয়ালের কায়দায় স্লোগান না দিলেও হাতখানা পাশেই তুলে রেখেছিল।

মুহূর্তেই কেজরিওয়ালের সঙ্গে সেলফি তোলার ধুম পড়ে যায়। ছবি: টুইটারমুহূর্তেই কেজরিওয়ালের সঙ্গে সেলফি তোলার ধুম পড়ে যায়। ছবি: টুইটার

কে এই ছোট্ট ‘কেজরিওয়াল’
শিশুর মুখে আঁকা গোঁফ, মাথায় আপের টুপি, গলায় মাফলার, গায়ে মেরুন সোয়েটার। গতকাল সকাল থেকেই এ ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরের সামনেই মায়ের কোলে ছিল ওই শিশু। এএপি তাদের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টেও সেই ছবি শেয়ার করেছে। ক্যাপশনে লিখেছে ‘মাফলারম্যান’।

জানা গেছে, এএপির সমর্থক রাহুল তোমার ও মীনাক্ষীর সন্তান এই ‘শিশু মাফলারম্যান’। তার নাম আয়ান তোমার। এই পরিবার দীর্ঘদিন ধরে কেজরিওয়ালকে সমর্থন করে। আন্না হাজারের সঙ্গে কেজরিওয়াল যখন আন্দোলন করেছিলেন, তখন থেকেই এই পরিবার তাঁদের পাশে আছে।

বাবার সঙ্গে খুদে কেজরিওয়াল। ছবি: টুইটারবাবার সঙ্গে খুদে কেজরিওয়াল। ছবি: টুইটার


২০১৫ সালের দিল্লি নির্বাচনের পর রাহুল ও মীনাক্ষী তাঁদের মেয়েকে কেজরিওয়াল সাজিয়েছিলেন। মীনাক্ষী তখন বলেছিলেন, ‘আমি চাই আমার মেয়েও কেজরিওয়ালের মতো সৎ হোক।’

অবাক চোখে দেখছে ‘মাফলারম্যান’। ছবি: টুইটারঅবাক চোখে দেখছে ‘মাফলারম্যান’। ছবি: টুইটার


তৃতীয়বার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন এএপির প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তাঁর দলের এ জয়ের প্রমাণ হয়েছে যে মানুষ বিভাজনের রাজনীতি চায় না। তারা যে শান্তি ও উন্নয়নের রাজনীতি চায়, তা ব্যালটে জানিয়ে দিয়েছে। তারই প্রমাণও মিলেছে দিল্লির ব্যালটে। এ ভোটে জয় হয়েছে গণতন্ত্রের। ৬৩ আসন এএপির দখলে। আর ৭টি আসন বিজেপির। তাই স্বাভাবিকভাবেই এএপির অফিসের সামনে ছিল উল্লাস। সেই উল্লাসের মধ্য খুদে কেজরিওয়ালে ছোট্ট আয়ান নজর কাড়ল।

  • সর্বশেষ - আন্তর্জাতিক