ময়মনসিংহ, , ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

করোনাকালে ইংল্যান্ডের জন্য উন্মুক্ত আবুধাবি স্টেডিয়াম

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

করোনাকালে ইংল্যান্ডের জন্য উন্মুক্ত আবুধাবি স্টেডিয়াম

করোনাভাইরাসের কারণে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ইংল্যান্ডের জনজীবন। এরই মধ্যে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা প্রায় দেড় লাখ, মৃত্যুবরণ করেছেন ১৯ হাজারের কাছাকাছি মানুষ। করোনা পরিস্থিতি নিকট ভবিষ্যতে ঠিক হয়ে যাওয়ার তেমন কোন আভাসও নেই।

এমতাবস্থায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের জন্য নিজেদের স্টেডিয়াম ব্যবহার করতে দিতে প্রস্তুত আবুধাবি ক্রিকেট (এডিসি)। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) চাইলে নিজেদের কাউন্টি ও আন্তর্জাতিক খেলাগুলোর জন্য আগামী অক্টোবর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত শেখ আবু জায়েদ স্পোর্টস কমপ্লেক্স ব্যবহার করতে পারবে।

এখনও এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে শিগগিরই ইসিবিকে এ প্রস্তাব দেবে এডিসি। সারাদেশে রাতের বেলা কারফিউ জারি করে করোনা পরিস্থিতি এখনও পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণেই রেখেছে আরব আমিরাত। শুধু তাই নয়, ধারণা করা হচ্ছে কিছু নিয়মকানুন মেনে আগামী সপ্তাহ থেকেই সচল হয়ে যাবে আমিরাত।

তাই পরিস্থিতি বিবেচনায় চার মাসের জন্য নিজেদের স্টেডিয়াম ও কমপ্লেক্স ইংল্যান্ডকে দিতে প্রস্তুত আবুধাবি ক্রিকেট। বেশ কয়েকবছর ধরেই পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সেকেন্ড হোম আবুধাবির শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়াম। এছাড়া আইপিএল, পিএসএল এবং বিভিন্ন আইসিসি ইভেন্টের ম্যাচও হয়েছে এই স্টেডিয়ামে।

আবু জায়েদ স্টেডিয়ামের বিশেষ সুবিধা হলো এর সঙ্গে লাগোয়া আরও দুইটি খেলার উপযোগী মাঠ রয়েছে। ফলে একসঙ্গে একাধিক ম্যাচও আয়োজন করা যাবে। এছাড়া মূল মাঠে অনুশীলনের জন্য ২৫টি নেট ও অন্যান্য সুবিধাদিও রয়েছে যথাযথ। টিভিতে সরাসরি খেলা দেখানোর জন্য সব সুযোগ সুবিধা রয়েছে। এমনকি খেলোয়াড়দের থাকার হোটেলও মাঠ থেকে মাত্র ১০ মিনিট দুরত্বে।

তবে তাই বলে যে, আবুধাবির প্রস্তাবে সহসাই রাজি হয়ে যাবে ইংল্যান্ড- এমনটা ভাবার সুযোগ নেই। কারণ সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে নিজেদের সরকার, খেলোয়াড় এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্টদের মতামতকেও দিতে হবে সমান গুরুত্ব। এরপরই হয়তো জানা যাবে, জরুরি অবস্থা চলাকালীন ইংল্যান্ডের সেকেন্ড হোম হবে কি না আবুধাবি স্টেডিয়াম।

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা