ময়মনসিংহ, , ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

থানায় অভিযোগ দেয়ায় মুক্তিযোদ্ধা বাবাকে কুপিয়ে আহত করল ছেলে

থানায় অভিযোগ দেয়ায় মুক্তিযোদ্ধা বাবাকে কুপিয়ে আহত করল ছেলে

নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার ছালিপুরা গ্রামে পারিবারিক কলহের জের ধরে মুক্তিযোদ্ধা মো. সাদির উদ্দিনকে (৬৫) কুপিয়ে আহত করেছে তারই ছেলে জনি ওরফে কদম আলী।আহত সাদির উদ্দিনকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত বুধবার (২৪ জুন) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বারহাট্টার ছালিপুরা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সাদির উদ্দিনের আগের স্ত্রী মারা যাওয়ায় তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন। তার দুই পক্ষের চার ছেলে। এরই মধ্যে দ্বিতীয় স্ত্রীর নামে প্রায় ৫০ কাঠা জমি দলিল করে দেন। সম্পত্তির ভাগাভাগি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সাদির উদ্দিনের ছেলেদের বিরোধ চলছিল। প্রায়ই এ নিয়ে ছেলেরা বাবাকে নানাভাবে নির্যাতন করত।


এজন্য জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাদির উদ্দিন বারহাট্টা থানায় ছেলে নান্নু মিয়া, জুলফিকার আলী ও জনি ওরফে কদম আলীর বিরুদ্ধে মামলা করতে যান। পুলিশ মামলা না নিয়ে বাবাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। পরে সাদির উদ্দিন বারহাট্টার ইউএনওর কাছে যান।


এতে তিন ছেলে ক্ষিপ্ত হয়। বাড়ি ফেরার পর ছেলে জুলফিকার আলী ও নান্নু মিয়ার সামনে অপর ছেলে জনি বৃহস্পতিবার রাতে সাদির উদ্দিনকে ধারাল দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। এ সময় এলাকাবাসী এগিয়ে এলে ছেলেরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত সাদির উদ্দিনকে উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।


মুক্তিযোদ্ধা সাদির উদ্দিন বলেন, জমি ভাগ করে দেয়ার জন্য ছেলেরা আমার ওপর প্রায়ই সময় অত্যাচার করে। ছেলেদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ায় আমাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছিল। এলাকাবাসী আমাকে রক্ষা করেছিল। পরে হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ।


বারহাট্টা থানা পুলিশের ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় তিন ছেলের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা সাদির উদ্দিন মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনার পর থেকে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে আসামিরা।

  • সর্বশেষ - মহানগর