ময়মনসিংহ, , ১০ আশ্বিন ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

যে কারণে ওয়ার্নের চেয়ে এগিয়ে মুরালিধরন

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

যে কারণে ওয়ার্নের চেয়ে এগিয়ে মুরালিধরন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক হাজারের বেশি উইকেট নেয়া বোলারের সংখ্যা মাত্র দুইজন। একজন শ্রীলঙ্কান অফস্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন, অন্যজন অস্ট্রেলিয়ান লেগস্পিনার শেন ওয়ার্ন। দুজনের মধ্যে কে সেরা- সে বিষয়ক আলোচনা বেশ পুরোনো। কারও পক্ষেই এক বাক্যে যেকোন একজনকে সেরা বলে দেয়া সম্ভব হয় না।


তবে মুরালির দীর্ঘসময়ের সতীর্থ মাহেলা জয়াবর্ধনে মনে করেন, বেশ কিছু দিকে ওয়ার্নের চেয়ে এগিয়ে মুরালি। বিশেষ করে বোলিংয়ের বৈচিত্র্য থাকার বিষয়ে মুরালির চেয়ে বেশ পিছিয়ে ওয়ার্ন, এমনটাই মনে করেন মাহেলা। ক্রিকইনফোর সঙ্গে ভিডিও সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন তিনি।


মাহেলা বলেন, ‘মুরালি একজন চ্যাম্পিয়ন বোলার ছিলেন। সে নিজের খেলার প্রতি অন্যদের চেয়ে ভিন্নভাবে এগুতো। মুরালির মতো এতো বৈচিত্র্য ওয়ার্নের ছিল না। মুরালি জানতো কীভাবে একজন ব্যাটসম্যানকে কাবু করে ফেলতে হয়। যদি কাউকে আউট করার জন্য ১০ ওভার অপেক্ষা করতে হয়, সে সেটাই করতে রাজি।’


তবে ওয়ার্ন এবং মুরালিকে ঠিক এক করতে রাজি নন মাহেলা। তার ভাষ্য, ‘ওয়ার্ন এবং মুরালি আসলে ভিন্ন ঘরানার দুজন। ওয়ার্ন একজন অদম্য লেগস্পিনার এবং ব্যাটসম্যানের ট্যাকটিক্যাল দিকটা নিয়ে বেশি আক্রমণ করে। বিষয়টা এমন যে, তুমি আমাকে মারার চেষ্টা করো, আমি তোমাকে আউট করবো। সম্ভবত সে নিজেও জানত যে, মুরালির মতো বৈচিত্র্য তার নেই।’


ক্যারিয়ার উইকেটসংখ্যা ওয়ার্নের চেয়ে মুরালির নামের পাশে ৩৪৬টি বেশি। টেস্টে ৮০০, ওয়ানডেতে ৫৩৪ এবং টি-টোয়েন্টিতে ১৩- মোট ১৩৪৭ উইকেট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে অবস্থান করছেন মুরালি। অন্যদিকে টেস্টে ৭০৮ ও ওয়ানডেতে ২৯৩- ওয়ার্নের মোট উইকেট ১০০১টি।


এসময় মাহেলা আরও জানান, তিনি নিজের খেলোয়াড়ি জীবনে শীর্ষ উইকেটশিকারীদের সবার বিপক্ষেই খেলেছেন। শ্রীলঙ্কার হয়ে প্রায় দেড় যুগের ক্যারিয়ারে ১৪৯ টেস্ট, ৪৪৮ ওয়ানডে ও ৫৫ টি-টোয়েন্টিতে প্রতিনিধিত্ব করেছেন মাহেলা। সবমিলিয়ে তিন ফরম্যাটে ২৫৯৫৭ রান করেছেন তিনি।


মাহেলা বলেন, ‘আপনি যদি আধুনিক ক্রিকেটে শীর্ষ উইকেটশিকারীদের দেখেন, তারা সবাই আমার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে খেলেছেন। যেখানে মুরালিধরন, ওয়ার্ন, (গ্লেন) ম্যাকগ্রা, (অনিল) কুম্বলে, হরভজন (সিং), (ওয়াসিম) আকরাম, ওয়াকার (ইউনিস) এবং সাকলাইনরা (মুশতাক) ছিলেন। পরিসংখ্যানই তাদের পক্ষে কথা বলে।’

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা