ময়মনসিংহ, , ৩ আশ্বিন ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

ব্যথায় কান্না করায় বৃদ্ধা রোগীকে থাপ্পড় মারলেন চিকিৎসক

ব্যথায় কান্না করায় বৃদ্ধা রোগীকে থাপ্পড় মারলেন চিকিৎসক

প্রতীকী ছবি

নেত্রকোনার পূর্বধলায় আমেনা খাতুন (৬০) নামের এক রোগীকে থাপ্পড় দেয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. এস.কে সরকারের বিরুদ্ধে।


আমেনা খাতুন পূর্বধলা উপজেলার খলিশাউড় ইউনিয়নের বয়রাকান্দা গ্রামের আ. খালেকের স্ত্রী। গত শনিবার হাসপাতাল গেট সংলগ্ন হেনা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে হাত ভাঙার প্লাস্টার করার সময় এ ঘটনা ঘটেছে।


আমেনা খাতুন বলেন, গত শনিবার সন্ধ্যায় আমার হাত ভেঙে যায়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কোনো ডাক্তার না পাওয়ায় আমার স্বামী, মেয়ে ও দেবর মিলে আ. রাশিদ নামের এক লোকের মাধ্যমে হেনা ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে যাই। সেখানে ডা. এস. কে সরকারকে খবর দিলে তিনি আমার ভাঙা হাতের প্লাস্টার করা শুরু করেন। এ সময় প্রচণ্ড ব্যথা সহ্য করতে না পারায় কান্না করার সময় তিনি আমার গালে জোরে থাপ্পড় মারেন এবং সবার সামনে আমার সাথে খারাপ আচরণ করেন।


ডা. এস.কে সরকারের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, রোগীকে আদর করে আমি একুট হালকা করে দিয়েছি কিন্তু এত জোরে দেইনি। আমি জাস্ট ভালোবেসে এমনটা করেছি। তিনি আরও জানান, তারা বিষয়টা নেভেটিভ ভেবে নিয়েছে।


উপজেলা পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. মাহমুদা আক্তার বলেন, বিষয়টা দুঃখজনক। যে ডাক্তার রোগীকে থাপ্পড় মারে সে আসলে ডাক্তারই নয়। আমি আগে জানলে বিষয়টির ব্যবস্থা নিতাম; তবে বিষয়টা মেনে নেয়ার মতো নয়। এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

  • সর্বশেষ - মহানগর