ময়মনসিংহ, , ৪ মাঘ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

প্রথমবার শিক্ষকের ধর্ষণের কথা গোপন করেছিল কিশোরী, কিন্তু দ্বিতীয়বার...

প্রথমবার শিক্ষকের ধর্ষণের কথা গোপন করেছিল কিশোরী, কিন্তু দ্বিতীয়বার...

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় নবম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বেলায়েত হোসেন নামে এক শিক্ষককে আটক করেছে এলাকাবাসী। পরে পুলিশে সোপর্দ করা হয় তাকে।  বুধবার রাতে উপজেলার খারুয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মামলার পর বৃহস্পতিবার ওই শিক্ষককে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গফরগাঁও উপজেলার চরমছলন্দর ইউনিয়নের নেদিয়ারচর ভাটিপাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে বেলায়েত হোসেন পার্শ্ববর্তী নান্দাইল উপজেলার দেওয়াগঞ্জ বাজারের একটি কোচিং সেন্টারে শিক্ষকতা করেন। ওই কোচিং সেন্টারেই প্রাইভেট পড়ে নান্দাইলের একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী। প্রথমে শিক্ষক বেলায়েত কৌশলে ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তুলেন। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দুই মাস পূর্বে কোচিং সেন্টারের ভেতরে তাকে ধর্ষণ করেন। পরে ঘটনাটি কাউকে না জানানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেন ছাত্রীকে।


ছাত্রীটি জানায়, ধর্ষণের পর সে আত্মহত্যার হুমকি দিলে খুব দ্রুতই তাকে বিয়ে করার কথা দিয়ে কালক্ষেপণ করতে থাকেন বেলায়েত। এ অবস্থায় গত বুধবার রাতে পড়াশুনার অগ্রগতি দেখার জন্য ওই ছাত্রীর পড়ার ঘরে গিয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান তিনি। এ অবস্থায় ছাত্রী চিৎকার শুরু করলে তার মা ও পরিবারের লোকজন ছুটে এসে শিক্ষক বেলায়েতকে হাতেনাতে ধরে পুলিশে খবর দেন।


নান্দাইল থানার ওসি মনসুর আহম্মদ জানান, পুলিশ ওই স্থানে গিয়ে জনতার হাতে আটক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। মামলার পর তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ - ময়মনসিংহ অঞ্চল