ময়মনসিংহ, , ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

এমপির কর্মীর কাছে ভিজিএফ’র ১০ কার্ড, আটকে রাখল এলাকাবাসী

এমপির কর্মীর কাছে ভিজিএফ’র ১০ কার্ড, আটকে রাখল এলাকাবাসী

ময়মনসিংহের ত্রিশালে সিএনজি ফিলিং স্টেশনের কর্মী শাজাহান হোসেন রুবেলকে ভিজিএফের ১০টি কার্ডসহ পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে এলাকাবাসী। ফিলিং স্টেশনটি ওই আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ হাফেজ মাওলানা রুহুল আমিন মাদানীর। এ ঘটনার পর থেকেই এলাকায় নানা সমালোচনা চলছে।


গতকাল মঙ্গলবার ২৮ জুলাই রামপুর ইউনিয়নের রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ভিজিএফের চাল বিতরণের সময় শাজাহান হোসেন রুবেলের কাছে ১০টি কার্ড পেয়ে স্থানীয়রা তাকে আটকে রেখে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে শাজাহান হোসেন রুবেলকে আটক করে।


স্থানীয়রা জানান, করোনা মহামারিতে গ্রামের অনেক মানুষ খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন। ভিজিএফের চাল গরিবের হক, সেখানেও এমপির লোকজন বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত। সব কিছুতেই এমপির লোকজনের আধিপত্য থাকতেই হবে না হয় মানুষের ভাগ্যে কিছুই জুটবেনা। স্বাধীন দেশে বাস করেও আমরা পরাধীন।


ত্রিশাল থানা পুলিশের ওসি মাহমুদুল ইসলাম বলেন, শাজাহান হোসেন রুবেলকে গ্রেফতারের পর একজন শিক্ষা অফিসার বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে রুবেলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়। রুবেল স্থানীয় সংসদ সদস্য প্রতিষ্ঠিত মাদানী সিএনজি ফিলিং স্টেশনে কাজ করতেন বলেও জানান ওসি মাহমুদুল ইসলাম।


সংসদ সদস্য আলহাজ হাফেজ মাওলানা রুহুল আমিন মাদানী জানান, রুবেল তার এখানে নয় কাকচর গ্রামে থাকে। তিনিও শুনেছেন ১০টি কার্ডসহ রুবেলকে আটকের কথা। তার ধারণা কারও কাছ থেকে কার্ডগুলো রুবেল ক্রয় করেছে। আইনি প্রক্রিয়ায় রুবেলের বিচার দাবি করেন রুহুল আমিন মাদানী।

  • সর্বশেষ - ময়মনসিংহ অঞ্চল