ময়মনসিংহ, , ১৫ কার্তিক ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের কুশীলবরা এখনও সক্রিয়

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের কুশীলবরা এখনও সক্রিয়

‘ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের কুশীলবরা এখনও আছে’ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।


রোববার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভার সূচনা বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।


রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে সংযুক্ত হয়ে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘উন্নয়নবিরোধী অপশক্তি এখনও চারপাশে। উগ্র সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এখনও সুযোগ খুঁজছে। তারা উন্নয়ন, শান্তি ও স্বস্তির বাংলাদেশ চায় না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধির আগামীর পথে এগিয়ে যাওয়া তাদের গাত্রদাহ। তারা এ দেশকে পাকিস্তানি ভাবধারায় ফিরিয়ে নিতে চায়। চায় সংঘাতে জর্জরিত রক্তময় প্রান্তর।’


তিনি আরও বলেন, ‘এরপরও দেশের বিনির্মাণের অগ্রযাত্রা এগিয়ে যাবেই। সতর্কতার পাশাপাশি আমাদের ঐক্যের মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে লাখো শহীদের রক্তস্রোতে পবিত্র এই ভূমি, পবিত্র-উর্বর সেই জমি এখন উন্নয়নের ফসলে ভরে তুলছেন উন্নয়নের কাণ্ডারি শেখ হাসিনা। এখানে কোনো ষড়যন্ত্রকারীর ঠাঁই নেই। সকল ষড়যন্ত্র মাড়িয়ে জনগণের ভালোবাসা, সমর্থন নিয়ে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির যে চলমান যাত্রা, তা এগিয়ে যাবে অদম্য গতিতে।’


আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি যে নির্যাতন-নিষ্ঠুরতা-নির্মমতার কথা বলে, তারা কি সবকিছু ভুলে যেতে চান? তারা ভুলে গেলেও জাতি ভুলে যায়নি। তাই বলব, আয়নায় নিজেদের চেহারা দেখুন। কলঙ্কিত ইতিহাস আর বিকৃত অবয়ব ছাড়া কিছুই দেখতে পাবেন না।’


“বিএনপি দুর্নীতি নিয়ে কথা বলে। বিএনপি আর দুর্নীতি শব্দ দুটি অনেকটাই সমার্থক। তাদের সময় দেশ পরপর পাঁচবার দুর্নীতিতে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। দুর্নীতিকে তারা প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল। তাদের দলীয় গঠনতন্ত্র থেকে ৭ ধারা বাতিল করে আত্মস্বীকৃত দুর্নীতিবাজ দল হিসেবে নিজেদের স্বীকৃতি দিয়েছে। তাদের মুখে অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে কথা বলা ‘ভূতের মুখে রাম নাম’ একই কথা।”


গণভবন প্রান্ত থেকে সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

  • সর্বশেষ - রাজনীতি