ময়মনসিংহ, , ৫ কার্তিক ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

ইউপি চেয়ারম্যানের ভাড়া করা গুদামে ৯২২ বস্তা সরকারি চাল

ইউপি চেয়ারম্যানের ভাড়া করা গুদামে ৯২২ বস্তা সরকারি চাল

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের নামে বরাদ্দকৃত জিআর ও ভিজিডির ২৭ হাজার ৬৬০ কেজি (৯২২ বস্তা) চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। সোমবার (১৭ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১টার দিকে পৌর শহরের দক্ষিণ দড়িয়াবাদ এলাকার মীম এন্টারপ্রাইজ নামে একটি গুদাম থেকে চালগুলো জব্দ করা হয়। চাল জব্দের পর গুদাম সিলগালা করে দিয়েছে প্রশাসন।


তবে ইউপি চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ হারুনের দাবি- ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী ভবন না থাকায় চালগুলো উত্তোলন করে বিতরণের জন্য গুদামে রেখেছেন।


উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গোয়ালেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন অর রশীদ জিআরের ৩০ কেজি ওজনের ৬০০ বস্তা ও ভিজিডির ৩০ কেজি ওজনের ৩২২ বস্তা চাল উত্তোলন করে পৌর শহরের দড়িয়াবাদ এলাকায় মীম এন্টারপ্রাইজ নামে একটি গুদামে রাখেন। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার গভীর রাতে ওই গুদামে অভিযান পরিচালনা করে উপজেলা প্রশাসন। অভিযানে জিআরের ১৮ হাজার কেজি ও ভিজিডির ৯ হাজার ৬৬০ কেজি চাল জব্দ করা হয়। পরে চালসহ গুদামটি সিলগালা করা হয়।


ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, চালগুলো কালোবাজারে বিক্রির জন্য ওই গুদামে রাখা হয়েছে কি-না তা তদন্তে মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি ঘোষণা করা হবে। তদন্তে বিষয়টি প্রমাণিত হলে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এ বিষয়ে গোয়ালেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ হারুন বলেন, আমার ইউনিয়নের স্থায়ী ভবন না থাকায় দীর্ঘদিন থেকে মীম এন্টারপ্রাইজ নামে একটি গুদাম ভাড়া নিয়ে ভিজিএফ ও ভিজিডি এবং জিআরের চাল এখান থেকে বিতরণ করি। তাই এবারও জিআর ও ভিজিডির চাল উত্তোলন করে বিতরণের জন্য ওই গুদামে রাখা হয়।


গুদাম মালিক জাহাঙ্গীর আলম জানান, ইউপি চেয়ারম্যান চার বছর ধরে তার গুদাম ভাড়া নিয়ে সরকারি চালসহ অন্য মালামাল উত্তোলন করে রাখেন। পরে সেখান থেকে নিয়ে বিতরণ করেন। এ চালের সঙ্গে তার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

  • সর্বশেষ - মহানগর