ময়মনসিংহ, , ১০ কার্তিক ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

কালজয়ী গায়ক আব্দুল জব্বারকে হারানোর তিন বছর

  বিনোদন ডেস্ক

  প্রকাশ : 

কালজয়ী গায়ক আব্দুল জব্বারকে হারানোর তিন বছর

'জয় বাংলা বাংলার জয়', 'তুমি কি দেখেছো কভু', 'ওরে নীল দরিয়া' গানের মতো বহু কালজয়ী গানের গায়ক আব্দুল জব্বার। আজ তার তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১৭ সালের ৩০ আগস্ট সকালে গানের এ পৃথিবী ছেড়ে অদেখা ভুবনে পাড়ি জমান।


দেখতে দেখতে তিন বছর হয়ে গেল এই কিংবদন্তিকে হারিয়ে ফেলার। চোখের দেখায় তিনি নেই। কিন্তু ভরাট কণ্ঠে তার গান রয়ে গেছে আজও বাংলার ঘরে৷ এখনো দেশের গানের কথা ভাবলেই মুক্ত আসে তার 'জয় বাংলা' গান। তার 'সালাম সালাম হাজার সালাম' ছাড়া ভাষা দিবসের প্রভাতফেরী পূর্ণতা পায় না। কালজয়ীরা এভাবেই বেঁচে থাকেন কর্ম দিয়ে, কালে কালে।


আব্দুল জব্বার ১৯৩৮ সালের ৭ নভেম্বর কুষ্টিয়া জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৬ সালে তিনি মেট্রিক পাশ করেন। ১৯৫৮ সালে তৎকালীন পাকিস্তান বেতারে গান গাওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয় তার সংগীত জীবনের রাজকীয় যাত্রা। ১৯৬৪ সাল থেকে তিনি বিটিভিতে শিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন।


তার আগেই ১৯৬২ সালে তিনি চলচ্চিত্রে প্রথম প্লেব্যাক করেন। তবে ১৯৬৮ সালে 'এতটুকু আশা' ছবিতে সত্য সাহার সুরে তাঁর গাওয়া 'তুমি কি দেখেছ কভু' গানটি দিয়ে রাতারাতি পরিচিতি লাভ করেন। একই বছর 'পিচ ঢালা পথ' ছবিতে রবিন ঘোষের সুরে 'পিচ ঢালা এই পথটারে ভালবেসেছি' ও 'ঢেউয়ের পর ঢেউ' ছবিতে রাজা হোসেন খানের সুরে 'সুচরিতা যেওনাকো, আর কিছুক্ষণ থাকো'- এ দুটি গান তাকে এনে দেয় আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা।


আব্দুল জব্বারের ক্যারিয়ারে মাইলফলক একটি গান 'ওরে নীল দরিয়া'৷ এটি তিনি ১৯৭৮ সালে মুক্তি পাওয়া 'সারেং বৌ' ছবিতে আলম খানের সুরে গেয়েছিলেন।


এ গানের প্রতি বিশেষভাবে দুর্বল ছিলেন শিল্পী নিজেও। যে বছর মারা যান সেই ২০১৭ সালে এ গানের সিক্যুয়েল হিসেবে 'কোথায় আমার নীল দরিয়া' শিরোনামে একটি অ্যালবাম প্রকাশ করেন। এটিই তার দীর্ঘ ক্যারিয়ারের একমাত্র মৌলিক গানের অ্যালবাম।


আব্দুল জব্বারের নাম এই দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধেও লেখা থাকবে শ্রদ্ধার অক্ষরে। স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালীন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে অনেক গান তিনি গেয়েছেন পাকিস্তানি শাসকের চোখ রাঙানো ডিঙিয়ে৷ এসব গান মুক্তিযোদ্ধাদের মনোবল ও প্রেরণা যোগাতো। তার গানে অনুপ্রাণিত হয়ে অনেকেই মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। যুদ্ধের সময় ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়য়ের সঙ্গে মুম্বাইয়ের বিভিন্নস্থানে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে জনমত তৈরিতেও কাজ করেন আব্দুল জব্বার


বলে রাখা ভালো, এ বরেণ্য শিল্পীর গাওয়া 'তুমি কি দেখেছ কভু জীবনের পরাজয়', 'সালাম সালাম হাজার সালাম' এবং 'জয় বাংলা বাংলার জয়' - এই তিনটি গান ২০০৬ সালের মার্চ মাস জুড়ে বিবিসি বাংলার আয়োজনে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাংলা ২০ গানের মধ্যে স্থান করে নিয়েছে।


কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ আব্দুল জব্বার পেয়েছেন কোটি মানুষের ভালোবাসা। পেয়েছেন অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা। এরমধ্যে রয়েছে বঙ্গবন্ধু স্বর্ণপদক (১৯৭৩), একুশে পদক (১৯৮০), স্বাধীনতা পুরস্কার (১৯৯৬), বাচসাস পুরস্কার (২০০৩) ও জহির রায়হান চলচ্চিত্র পুরস্কার।

  • সর্বশেষ - বিনোদন