ময়মনসিংহ, , ১৫ কার্তিক ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির জ্বালা ভুঁইফোঁড় সংগঠন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

বিএনপির জ্বালা ভুঁইফোঁড় সংগঠন

ভুঁইফোঁড় সংগঠনের কর্মকাণ্ডে অস্বস্তির মধ্যে পড়েছে বিএনপি। জিয়া পরিবার বা বিএনপির নাম ব্যবহার করে প্রবাসে হুট করে কিছু সংগঠনের ‘শাখা’ খোলা হলেও খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, দেশেই সেই নামে কোনো সংগঠনের অস্তিত্ব নেই অথবা স্বীকৃতি নেই। ‘জাতীয়তাবাদী’ বা ‘বিএনপিপন্থী’ পরিচয়ধারী এসব সংগঠন একদিকে যেমন কোনো নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে প্রবাসে কমিটি গঠনের আড়ালে বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে, তেমনি তাদের উদ্যোগে আয়োজিত বিভিন্ন ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে কিছু জ্যেষ্ঠ নেতার বক্তব্য দলকে ফেলছে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে। এ প্রেক্ষাপটে বিএনপির হাইকমান্ডের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্টদের সতর্কতামূলক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব জানতে পারে, জিয়া পরিবার ও বিএনপির নাম ব্যবহার করে ভুঁইফোঁড় সংগঠন গড়ে প্রবাসে একটি চক্র লাখ লাখ টাকার কমিটি বাণিজ্য করছে। ভুয়া প্যাডে কমিটি অনুমোদনের নামে প্রবাসে একটি চক্র বিএনপির সুনাম ক্ষুণ্ন করে টাকার বিনিময়ে এসব কমিটির অনুমোদন দিচ্ছে। এমনই একটি চক্র গত ১৯ আগস্ট ‘শহীদ জিয়া ছাত্র পরিষদ’ নামে একটি সংগঠনের ‘জাপানের কেন্দ্রীয় কমিটি’ অনুমোদন দেয়, সেখানে বাংলাদেশে অবস্থিত কেন্দ্রীয় কমিটির প্যাড ব্যবহার করা হয়। অথচ খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শহীদ জিয়া ছাত্র পরিষদ নামে একটি সংগঠন দেশে তৎপর থাকলেও এটি স্বীকৃত নয় বিএনপির পক্ষ থেকে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করলে সদ্যঘোষিত ‘শহীদ জিয়া ছাত্র পরিষদ জাপান কেন্দ্রীয় কমিটি’র সভাপতি মোল্লা সেলিম আহমেদ  বলেন, কোনো ধরনের অনৈতিক বা আর্থিক সুবিধার মাধ্যমে এ কমিটি হয়নি। কেন্দ্রীয় কমিটির তত্ত্বাবধানে এই কমিটি হয়েছে।

আর পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি পরিচয়ধারী শহিদুল ইসলাম রানার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমাদের এটা বিএনপি কর্তৃক কোনো স্বীকৃত সংগঠন নয়। আমরা চেষ্টা করছি, দলের স্বীকৃতি পাওয়ার জন্য। দেশে অন্তত ৩০-৩৫ জেলায় আমাদের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড রয়েছে।

Chhatraparshad-2

সম্প্রতি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে যায় ‘শহীদ জিয়া ছাত্র পরিষদ’ নামের সংগঠনটি, যদিও এটি বিএনপির স্বীকৃত সংগঠন নয়

তবে বিভিন্ন পরিসরে অর্থের বিনিময়ে জাপান কমিটি ঘোষণার অভিযোগ উঠলেও তা অস্বীকার করেন শহিদুল ইসলাম রানা।

এদিকে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে গত প্রায় পাঁচ মাস দলীয় তেমন কর্মসূচি না থাকায় বিভিন্ন ভুঁইফোঁড় সংগঠনের ব্যানারে ভার্চুয়াল আলোচনা ও টকশো চলছে। এসব আলোচনা ও টকশোতে দেশ-বিদেশে অবস্থানরত বিএনপির আমন্ত্রিত নেতারা তাদের মতামত তুলে ধরছেন।

দলীয় সূত্র বলছে, ভুঁইফোঁড় সংগঠনের কর্মকাণ্ড নিয়ে সম্প্রতি বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আলোচনা হয়। সেখানে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বলেন, ওইসব ভার্চুয়াল আলোচনা ও টকশোতে আমন্ত্রিত নেতাদের কারও কারও বক্তব্যে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে। বৈঠকে ভার্চুয়ালি যোগ দেয়া দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানও এ নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। দলীয় অনুমোদন নেই এমন কোনো সংগঠনের আলোচনা বা টকশোতে কেউ যেন কথা না বলেন, সে বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা দেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্দেশনা দেন তিনি।

ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৪ আগস্ট বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদকদের একটি চিঠি পাঠান। ওই চিঠিতে বলা হয়, বহির্বিশ্বে কেন্দ্রের অনুমোদিত কমিটি ব্যতিরেকে দলের নাম ব্যবহার করে কোনো সংগঠন বা ব্যক্তির কোনো ভার্চুয়াল সভা-সমাবেশ বা টেলিফোনে বক্তব্য প্রদানে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের অংশগ্রহণ না করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। দলের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় নেতাদের অবগত করার জন্য আপনাদের অনুরোধ করা হলো। বিষয়টি অতীব জরুরি।

Chhatraparshad-2

প্যাড বানিয়ে ‘শহীদ জিয়া ছাত্র পরিষদ’র বিজ্ঞপ্তি ও কমিটি ঘোষণা

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার জানান, ওই চিঠির বিষয়ে সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। চিঠিতে ভুঁইফোঁড় সংগঠনের অনুষ্ঠানে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের বক্তব্য প্রদানে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। এটা দলের হাইকমান্ডের সিদ্ধান্ত। এটি যথার্থ বলে আমি মনে করি। কারণ দলের সঙ্গে সম্পর্ক নেই এমন অনেক ভুঁইফোঁড় সংগঠনের অনুষ্ঠানে দলের কেউ কেউ বক্তব্য দিয়ে থাকেন। এটা যেন ভবিষ্যতে কেউ না দেন সেজন্যই এই নির্দেশনা।

বিগত দিনে কারা এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সুনির্দিষ্টভাবে কারও নাম বলা সম্ভব নয়। তবে অনেকেই ব্যক্তিগতভাবে কথা বলতে গিয়ে দলের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ান। তাদের বিরত রাখতেই এই প্রচেষ্টা। আমরা কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের বিষয়টি অবহিত করব, যেন এ ধরনের কাজ ভবিষ্যতে আর কোনো নেতা না করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, ইতোমধ্যে বহির্বিশ্বে যারা দলের সুনাম ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করেছে, তাদের সকলকে চিহ্নিত করা হয়েছে এবং তাদের দলীয় সকল পদ থেকে আজীবন বহিষ্কারের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

‘শহীদ জিয়া ছাত্র পরিষদ’র জাপান কমিটি ঘোষণার বিষয়ে জানতে চাইলে রিজভী বলেন, প্রবাসের কমিটি তো পরের বিষয়। দেশেই বিএনপির এমন কোনো স্বীকৃত সংগঠন নেই।

  • সর্বশেষ - রাজনীতি