ময়মনসিংহ, , ১২ আশ্বিন ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

বার্ন ইউনিটে দগ্ধদের স্বজনরাই কিনে আনছেন ঔষধ!

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

বার্ন ইউনিটে দগ্ধদের স্বজনরাই কিনে আনছেন ঔষধ!
বার্ন ইউনিটের চিত্র। ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে দগ্ধ ৯আশঙ্কাজনক অবস্থায় থাকা রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা ও সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু রোগীর স্বজনদেরকেই নানা প্রয়োজনীয় ঔষধ কিনে দিতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন শেখ হাসিনা বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে থাকা এক যুবক।

সোমবার দুপুরে এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা মাওলানা তালহা স্বজনদের হয়ে ওই অভিযোগের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করেন। সেখানে তিনি বলেন, মসজিদে দগ্ধদের চিকিৎসা যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রি করার জন্য বলে দিয়েছেন। সেখানে রোগীদের স্বজনদের দিয়ে নানা প্রকার চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয় করানো হচ্ছে। রোগীর শরীরে বাইরে থেকে মলম কিনে আনতে হচ্ছে করে আনতে হচ্ছে। হ্যান্ড গ্লাভস থেকে শুরু করে নানা সামগ্রী চিকিৎসকরা লিখে দিচ্ছেন।

তিনি অভিযোগ করেন, মসজিদের কমিটির সেক্রেটারি হান্নান মিয়ার জন্য ঔষধসহ বাইরে থেকে সরঞ্জাম কেনার টোকেন ধরিয়ে দিয়েছে বার্ন ইউনিটের স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা।

তিনি দাবি জানিয়ে বলেন, অনেকের কাছেই টাকা নেই বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এদিকে একই অভিযোগ করেছেন এ ঘটনায় বেঁচে ফেরা সালমা বেগম ও তার স্বামী।

ঘটনার দিনের বর্ণনা দিতে গিয়ে তারা বলেন, আমাদের শুধু ব্যান্ডেজ করা ছাড়া তেমন কোনো চিকিৎসাই দেয়নি বার্ন ইউনিটে। ওষুধ লিখে দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছে। একটি ইনজেকশনও ফ্রি দেয়নি।

গত রোববার (৬ সেপ্টেম্বর) ফতুল্লার তল্লা এলাকার সরদারপাড়ায় গৃহিণী সালমা বেগম সেদিন বিস্ফোরণের আগেই ঘর থেকে বেরিয়েছিলেন ওষুধ কিনতে।

মসজিদের সামনে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয় এবং আগুনের ফুলকি এসে তার গায়ে পড়ে। পরে তাকে শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

  • সর্বশেষ - মিডিয়া