ময়মনসিংহ, , ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

ঘরে বসে অনলাইনে ব্যবসা করে সফল লাকসামের কোহেলি

  মিডিয়া ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ঘরে বসে অনলাইনে ব্যবসা করে সফল লাকসামের কোহেলি

নারীরা আর চুপটি মেরে ঘরে বসে থাকতে রাজি নন। কোনোভাবে স্বাবলম্বী হতে চান বর্তমান সময়ের আধুনিক নারীরা। নারীদের কর্মক্ষেত্রে অনলাইন এখন বাংলাদেশে খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এতে শুধু ঘরে বসে নারীর অনেক কর্মসংস্থানও তৈরি হয়েছে।


তরুণরা নিজেরাই উদ্যোগী হয়ে অনলাইনে ব্যবসা শুরু করছেন এবং এগিয়ে যাচ্ছেন। নারীদের প্রতিষ্ঠিত হয়ে দাঁড়ানোর খুব ভালো মাধ্যম হতে পারে এই অনলাইন ব্যবসা। সেই ধারণা থেকেই বলছি- কুমিল্লার লাকসামে অনলাইন ব্যবসার সফল নারী কোহেলি হকের গল্প।


২০১৯ সালে স্বামীর ও তার ভাই ইকবাল হোসেনের সহযোগিতা এবং সাহস নিয়ে যাত্রা শুরু করেন তরুণ উদ্যোক্তা কোহেলি হক। ফেসবুকে একটি মাছে-ভাতে বাঙালিয়ানা পেজ খুলে বিভিন্ন ব্যক্তিদের সঙ্গে অনলাইন ব্যবসা শুরু করেন কোহেলি।


কোহেলি হক ১৯৮৬ সালের ২৫ এপ্রিল লাকসাম পৌরশহরে ফতেপুর গ্রামে পিতৃভূমিতে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মৃত দেলোয়ার হোসেন, তিনিও একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ছিলেন। মা শামসুন্নাহার বেগম ছিলেন গৃহিণী। কোহেলি হক ১৯৯২ সালে দৌলতগঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ালেখা শুরু করে পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে নবাব ফয়জুন্নেসা সরকারি কলেজে ভর্তি হন। এইচএসসি পরীক্ষার সময় ২০০৬ সালে বিয়ের বেড়াজালে আটকে পড়েন কোহেলি হক। ফলে থমকে যায় তার শিক্ষাজীবন। বৈবাহিক জীবনে তাদের দুই সন্তান রয়েছে। স্বামী আর দুই সন্তানকে নিয়ে সুখেই দিনতিপাত করছেন তারা।


কোহেলি হকের ফেসবুক পেজ অনলাইনে ‘মাছে ভাতে বাঙালিয়ানা’ নামে গ্রুপে রয়েছে দেশি-বিদেশি প্রজাতির বিভিন্ন মাছ সরবরাহের তথ্য। বিভিন্ন ব্যক্তিদের পছন্দের মাছগুলো দেশের বিভিন্ন স্থানে পৌঁছে দিচ্ছেন। এমনকি ভারত, আমেরিকা, কানাডা ও সুইজারল্যান্ডসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নিজ দায়িত্বে রফতানি করে থাকেন। ভোক্তাদের রুচি ও পছন্দ অনুযায়ী তিনি পণ্য এনে থাকেন। দাম ও মানের কারণে তিনি সাধারণের কাছে অল্প সময়ে ভালো অবস্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছেন।


এমন উদ্যোগ সম্পর্কে কোহেলি হক বলেন, শুরুটা অনেক সহজ না হলেও পরিবার এবং বন্ধুদের সহযোগিতায় আমি এগিয়ে চলতে সাহস পেয়েছি। পড়াশুনা শেষ করে সংসার করার পাশাপাশি নিজে কিছু একটা করার দৃঢ় ইচ্ছে থেকেই মাথায় আসে অনলাইন ব্যবসার প্ল্যান। তবে এ কাজে সবসময় তার স্বামী ও বড় ভাই ইকবাল হোসেন অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন। সেই সঙ্গে শ্বশুরবাড়ির সাপোর্টের কথাও জানান তিনি।


বর্তমান ব্যবসার অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, ভালো কেনাবেচা চলছে এবং ধীরে ধীরে আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে তার অনলাইন পেজ ‘মাছে ভাতে বাঙালিয়ানা’। ভবিষ্যতে তিনি একজন সফল নারী উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত দেখতে চান।


কোহেলি বলেন, আমার স্বপ্ন ছিল একজন উদ্যোক্তা হওয়ার। সেই লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছি সঙ্গে পরিশ্রম করে যাচ্ছি। বলতে গেলে অনেকটাই শূন্য থেকে শুরু করেছিলাম। তাই অন্য নারীদেরও উচিত হবে শুধু শুধু ঘরে বসে না থেকে সংসারের পাশাপাশি কিছু একটা করা। স্বপ্ন, সামান্য পুঁজি আর পরিশ্রম থাকলেই অনেক দূর এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

  • সর্বশেষ - মিডিয়া