ময়মনসিংহ, , ৭ বৈশাখ ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

অসাম্প্রদায়িকতা বাংলাদেশের হাজার বছরের ঐতিহ্য

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

অসাম্প্রদায়িকতা বাংলাদেশের হাজার বছরের ঐতিহ্য

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, অসাম্প্রদায়িকতা বাংলাদেশের হাজার বছরের ঐতিহ্য। কোনো আইন, সংবিধান দ্বারা এটাকে পরিবর্তন করা সম্ভব নয়।


শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ আয়োজিত ‘বীর উত্তম সি আর দত্ত : আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।


জিএম কাদের বলেন, ‘আমার বিশ্বাস যারা অসাম্প্রদায়িক, স্বাভাবিকভাবেই তারা ধর্মের নিরপেক্ষতায় বিশ্বাস করেন। এটা আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্য। কোনো আইন, সংবিধান দ্বারা এটাকে পরিবর্তন করা সম্ভব নয়।’


জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘বলা হয় যে, জাতীয় পার্টির আমলে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ১৯৮৮ সালে ৩০ নম্বর আইনের ২ ধারায় বাংলাদেশের সংবিধানের পরিবর্তন নিয়ে এসেছিলেন। সেই ধারাটি হলো- “প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, কিন্তু অন্যান্য ধর্ম প্রজাতন্ত্রে শান্তিতে পালন করা যাবে।” এই বিষয়টিতে আপনাদের সকলের আপত্তি ছিল, অনেকেই এটাতে দ্বিমত প্রকাশ করেছিলেন। পববর্তীতে এটাকে পরিবর্তন করার জন্য আন্দোলনও হয়েছিল।’


২০১১ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসলো, তখন সংবিধানকে নতুনভাবে সংশোধন করা হয়। কিন্তু সেই পঞ্চদশ সংশোধনীতে ১৪ নম্বর আইন, ৪ ধারায় বলা হয়েছে “প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। তবে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ অন্যান্য ধর্ম পালনে রাষ্ট্র সমমর্যাদা নিশ্চিত করিবেন।” এটা আওয়ামী লীগ আমলে করা হয়েছে।’


তিনি বলেন, ‘আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে আমি মনে করি- ওই সংশোধনীর সঙ্গে সংবিধানের মূলভিত্তি ধর্ম নিরপেক্ষতার কোনো বিরোধ নেই।’


আলোচনা সভায় সি আর দত্তের জীবনী পাঠ করেন জয়ন্ত কুমার দে। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাংবাদকি বাসুদেব দত্ত। স্বাগত বক্তব্য দেন আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রানা দাস গুপ্ত। উষাতন তালুকদারের সভাপতিত্বে এতে আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থনীতিবিদ ড. দেবপ্রিয় ভট্টচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মেসবাহ কামাল, সেক্টরস কমান্ডার ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবিব, সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চিত্তরঞ্জন দাস প্রমুখ।


এর আগে অতিথিরা সি আর দত্তের অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর ‘মুক্তির মন্দিরে স্বোপানতলে কত প্রাণ হলে বলিদান’ শীর্ষক সমবেত গান পরিবেশন করেন সংগঠনের শিল্পীরা। পরে তার জীবন ও কর্ম নিয়ে একটি তথ্যচিত্র পরিবেশন করা হয়।


গত বছরের ২৫ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় মারা যান মেজর জেনারেল (অব.) সি আর দত্ত বীর উত্তম। তার জন্ম ১৯২৭ সালের ১ জানুয়ারি আসামের শিলংয়ে। তিনি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।

  • সর্বশেষ - রাজনীতি