ময়মনসিংহ, , ২১ ফাল্গুন ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

কেউ আইপিএল খেলতে চাইলে তাকে ‘না’ বলতে পারেন না : বেয়ারস্টো

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

কেউ আইপিএল খেলতে চাইলে তাকে ‘না’ বলতে পারেন না : বেয়ারস্টো

সাকিব আল হাসান আইপিএলের জন্য শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন টেস্ট সিরিজে খেলবেন না। এ নিয়ে সরগরম দেশের ক্রীড়াঙ্গন। কেন দেশের খেলা ছেড়ে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে, দেশের প্রতি কি কোনো দায়িত্ববোধ নেই? এমন প্রশ্ন সমালোচকদের।


তবে শুধু সাকিবই যে এমন করছেন, তা কিন্তু নয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটারদের এই ‘বদনাম’ অনেক দিনের। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার অনেক ক্রিকেটারই দেশের আগে আইপিএলকে প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।


আর সেটা দিলে দোষের কিছু দেখছেন না ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো। শুধু টেস্ট খেলার জন্য আইপিএলের লোভনীয় প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়া যে কোনো ক্রিকেটারের জন্যই কঠিনতম কাজ, মনে করেন তিনি।


বেয়ারস্টো বলেন, ‘দেখুন, এটা খেলারই অবিচ্ছেদ্য অংশ। এমন অনেক ক্রিকেটার আছেন, যাদের সাদা বলের কিংবা লাল বলের চুক্তি আছে। আবার দুই বলের চুক্তিতে আছেন এমন ক্রিকেটারও কম নয়। আমার মনে হয়, যারা সাদা বলের চুক্তিতেও আছেন, তারা আইপিএলে খেলতে যেতে চাইতে পারে। আপনি তাদের যেতে নিষেধ করতে পারেন না।’


বেয়ারস্টো নিজেও আইপিএলে গুরুত্বপূর্ণ নাম। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অন্যতম ব্যাটিং স্তম্ভ তিনি। ভারতে চলতি সিরিজে প্রথম দুই টেস্টে বিশ্রামে ছিলেন বেয়ারস্টো, শেষ দুই টেস্টের জন্য ইংল্যান্ড দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। খেলবেন সীমিত ওভারের সিরিজও।


অর্থাৎ দুই ফরমেটের চুক্তিতেই আছেন বেয়ারস্টো নিজে। তাই শুধু টেস্টের কথা ভেবে তার মতো খেলোয়াড়দের আইপিএলের প্রস্তাব অগ্রাহ্য করা কঠিন, মনে করিয়ে দিলেন। ভারতের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টেস্টের আগে (২৪ ফেব্রুয়ারি শুরু) ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন এই ইংলিশ ক্রিকেটার।


এমন সমালোচনাও আছে, আইপিএলের জন্য দম জমিয়ে রাখতেই ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা বিশ্রাম নিয়ে নিয়ে টেস্ট খেলছেন। তবে বেয়ারস্টো মনে করেন, এই বিশ্রামটা খুব দরকার।


তার ভাষায়, ‘যদি বিশ্রামের কথা বলতে হয়, যখন আপনি কাউকে ২ জানুয়ারি থেকে ২৯ মার্চ পর্যন্ত ঘরের বাইরে বাবলের মধ্যে থাকতে বলবেন, তাদের কিন্তু বিশ্রামেরও দরকার হবে। এজন্যই আমাদের কোচিং স্টাফরা খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা