, ২ কার্তিক ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

মহামারিতে নিজ অবস্থানে থাকতে বলেছেন বিশ্বনবি

  ধর্ম ডেস্ক

  প্রকাশ : 

মহামারিতে নিজ অবস্থানে থাকতে বলেছেন বিশ্বনবি

প্রায় দেড় বছর ধরে আমরা মহামারি করোনার সাথে লড়ছি। এরমধ্যে অনেকের আত্মীয়-স্বজনকে আমরা হারিয়েছি। গত ক’দিন ধরে করোনায় আমাদের দেশে একশ’র উপরে মৃত্যু হচ্ছে। আমরা কেউ জানি না, বৈশ্বিক এ মহামারির শেষ কোথায়?

মহামারিসহ সব বিপদ-আপদ থেকে রক্ষায় প্রতিনিয়ত আল্লাহর কাছে আমাদের পাপের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে এবং ইসলামি নির্দেশনা অনুসরণ করে জীবন পরিচালনা করা উচিত।

হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা থেকে বর্ণিত, ‘তিনি রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে প্লেগ রোগ (মহামারি) সম্পর্কে জিজ্ঞেস করেন। আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকে জানান, এটি হচ্ছে এক ধরনের শাস্তি। আল্লাহ যার ওপর তা পাঠাতে ইচ্ছে করেন, পাঠান। কিন্তু আল্লাহ এটিকে মুমিনের জন্য রহমত বানিয়েছেন। অতএব প্লেগ রোগে কোনো বান্দা যদি ধৈর্য ধরে এবং এ বিশ্বাস নিয়ে আপন শহরে অবস্থান করতে থাকে, আল্লাহ তার জন্য যা নির্দিষ্ট করে রেখেছেন; তা ছাড়া আর কোনো বিপদ তার ওপর আসবে না। তাহলে সেই বান্দার জন্য থাকবে শহীদের সাওয়াবের সমান সাওয়াব।’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৫৭৩৪)

আজ সমাজের সর্বত্র পাপের ছড়াছড়ি। পাপ কাজ করতে করতে আমরা সীমা অতিক্রম করেছি। এমন কোনো পাপ কাজ নেই, যা আজ আমাদের দ্বারা সংঘটিত হচ্ছে না। আমাদের পাপের কারণেই মূলত একের পর এক বিপদাপদ ধেয়ে আসছে।

হাদিসে এসেছে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এরশাদ করেন, ‘যখন কোনো জাতির মধ্যে প্রকাশ্যে অশ্লীলতা ছড়িয়ে পড়ে, তখন সেখানে মহামারি আকারে প্লেগ রোগের প্রাদুর্ভাব হয়। তা ছাড়া এমন সব ব্যাধির উদ্ভব হয়, যা আগের লোকদের মধ্যে কখনো দেখা যায়নি।’ (সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪০১৯)

আমাদের উচিত, নিজেদের পাপের জন্য পরিশুদ্ধ হৃদয় নিয়ে সৃষ্টিকর্তার কাছে ক্ষমা চাওয়া। কেননা একমাত্র তিনিই পারেন আমাদের ক্ষমা করে সব বিপদ থেকে রক্ষা করতে।

মহামারির সময় বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যে নির্দেশ দিয়েছেন, তার ওপর আমাদের সবাইকে আমল করতে হবে। এখনো অনেকে এমন আছেন, যারা স্বাস্থ্যবিধি এবং সরকারি নিয়মনীতি মানছেন না। দেড় বছর পার করার পরও যদি আমরা করোনা থেকে শিক্ষা গ্রহণ না করি তাহলে কবে গ্রহণ করব?

মহামারির এ সময়ে আমরা যে যেখানে অবস্থান করছি; সে যেন সেখান থেকে অন্য কোথাও না যাই। কেননা এ বিষয়ে মহানবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম স্পষ্টভাবে আমাদের নিষেধ করেছেন।

মহানবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘কোথাও মহামারি দেখা দিলে এবং সেখানে তোমরা অবস্থানরত থাকলে সে জায়গা ছেড়ে চলে এসো না। আবার কোনো এলাকায় এটা দেখা দিলে এবং সেখানে তোমরা অবস্থান না করে থাকলে, সে জায়গায় গমন করো না।’ (তিরমিজি, হাদিস : ১০৬৫)

বর্তমানে আমাদের দায়িত্ব মহানবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের এ নির্দেশের ওপর আমল করা এবং সব সময় দোয়া করতে থাকা।

এ সময় আমরা এ দোয়াটি অধিকহারে পড়ব, ‘আল্লাহুম্মা ইন্নি আউজুবিকা মিনাল বারাসি, ওয়াল জুনু-নি, ওয়াল জুজামি, ওয়া মিন সাইয়িইল আসকাম।’ অর্থ : হে আল্লাহ, আমি আপনার কাছে কুষ্ঠরোগ, মস্তিষ্কের বিকৃতি ও সব ধরনের দুরারোগ্য থেকে মুক্তি চাচ্ছি।’ (আদু দাউদ, হাদিস : ৫৪৯৩)

আল্লাহ তাআলা আমাদের তার ক্ষমার চাদরে জড়িয়ে নিন এবং বিশ্বকে করুন করোনামুক্ত। আমিন।

  • সর্বশেষ - অতিথি কলাম