, ১২ আশ্বিন ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

করোনায় বিপর্যস্ত পর্তুগাল, ৪৫ শহরে সান্ধ্য কারফিউ জারি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

  প্রকাশ : 

করোনায় বিপর্যস্ত পর্তুগাল, ৪৫ শহরে সান্ধ্য কারফিউ জারি

সম্প্রতি পর্তুগালের রাজধানী ও আশপাশের শহরে করোনার উচ্চ সংক্রমণ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ইংল্যান্ডের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ফলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে খুব দ্রুত। বিশেষ করে তরুণ এবং যুবকদের মধ্যে।

পরিস্থিতি বিবেচনায় লিসবনসহ ৪৫টি শহরের জন্য নতুন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। গত ২ জুলাই থেকে কার্যকর হয়েছে। বর্তমানে প্রায় ৪৫টি মিউনিসিপ্যাল রয়েছে যেখানে করোনা পরিস্থিতিতে অত্যন্ত মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এর মধ্যে উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ মিউনিসিপ্যাল রয়েছে ২৬টা এবং খুবই উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ মিউনিসিপ্যাল হলো ১৯টা। সব মিলিয়ে এই ৪৫টি শহরের জন্য সান্ধ্যকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে।

ফলে এ সকল শহর সমূহে রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত কারফিউ বলবৎ থাকবে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সময়সূচি হবে সুবিনিয়র বা ট্যুরিস্ট শপসহ অন্যান্য দোকানপাট সাধারণ কর্ম দিবসে রাত ৯টা পর্যন্ত এবং শনি রোববারসহ অন্যান্য ছুটির দিন বিকেল ৩টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

রেস্টুরেন্ট সোমবার থেকে শুক্রবার রাত ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত এবং শনি রোববার ও ছুটির দিন বিকেল ৩টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। এ সময় ভেতরে এক টেবিলে সর্বোচ্চ ৪ জন এবং বাইরে ৬ জন বসতে পারবে। তবে টেইকওয়ে কিংবা হোম ডেলিভারির জন্য খোলা রাখতে পারবে।

শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে সোমবার ভোর ৫টা পর্যন্ত লিসবনে প্রবেশ এবং বাইর হওয়া যাবে না। তবে ৭২ ঘণ্টার ভেতরে পিসিআর অথবা ৪৮ ঘণ্টার ভেতরে এন্টিজেন করোনা নেগেটিভ টেস্ট সঙ্গে থাকলে অথবা করোনার ডিজিটাল সাটিফিকেট থাকলে চলাচলে কোন বাঁধা থাকবে না।

মিনি মার্কেট এবং সুপার মার্কেট শনি ও রোববার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এবং সপ্তাহের অন্যান্য দিন ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে বলে জানানো হয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় পর্তুগালের নতুন সংক্রমণ ২৪৩৬ জন এবং ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। পর্তুগালের স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসেবে আজ প্রায় ৫৩২ জন করোনা রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তাছাড়া মোট আক্রান্তের ৫৬.২ ভাগ লিসবন এবং টাগুস নদী উপত্যকার বলে জানানো হয়।

  • সর্বশেষ - আন্তর্জাতিক