, ১২ আশ্বিন ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

তিন মাস পর ভারতে দৈনিক সংক্রমণ ৪০ হাজারের নিচে

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

  প্রকাশ : 

তিন মাস পর ভারতে দৈনিক সংক্রমণ ৪০ হাজারের নিচে

চলমান করোনাভাইরাস মহামারিতে ভারতে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা আরও কমেছে। তিন মাস পরে ৪০ হাজারের নিচে নেমেছে সংক্রমণ। একইসঙ্গে আগের দিনের তুলনায় কমেছে প্রাণহানির সংখ্যাও। যদিও বেড়েছে দৈনিক সংক্রমণের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত মানুষের তুলনায় দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন বেশি মানুষ।

সোমবার (৫ জুলাই) ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩৯ হাজার ৭৯৬ জন মানুষ। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় দেশটিতে নতুন সংক্রমিত রোগী কমেছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার। সর্বশেষ এই সংখ্যাসহ মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৫ লাখ ৮৫ হাজার ২২৯ জনে।

অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭২৩ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় গত একদিনে মৃত্যু কমেছে দুই শতাধিক। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৪ লাখ ২ হাজার ৭২৮ জন।

এদিকে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ভারতে দৈনিক আক্রান্তের তুলনায় বেশি সংখ্যক মানুষ সুস্থ হয়েছেন। ফলে দেশটিতে কমেছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। গত একদিনে ভারতে সুস্থ হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৪২ হাজার মানুষ। অন্যদিকে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৪০ হাজার।

একসময় দেশটিতে ৩৭ লাখের বেশি সক্রিয় রোগী থাকলেও কমতে কমতে সেই সংখ্যা নেমে এসেছে ৫ লাখের নিচে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সক্রিয় রোগী কমেছে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার। দেশটিতে এখন মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪ লাখ ৮২ হাজার ৭১ জন।

এদিকে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর) জানিয়েছে, জুলাই মাসের ৪ তারিখ পর্যন্ত ভারতে ৪১ কোটি ৯৭ লাখ ৭৭ হাজার ৪৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৫ লাখ ২২ হাজার ৫০৪ জনের।

নতুন করে সংক্রমণের সংখ্যা নিম্নমুখী হলেও এর দৈনিক হার আগের দিনের থেকে বেড়ে হয়েছে ২ দশমিক ৬১ শতাংশ। রোববার এই হার ছিল ২ দশমিক ৩৪ শতাংশ। প্রতিদিন যে সংখ্যক কোভিড টেস্ট করা হয়, তার মধ্যে যত শতাংশের রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তাকেই ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার বলা হয়।

ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে নতুন করে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কেরালার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যটিতে ১২ হাজার ১০০ জন নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া মহারাষ্ট্রে সাড়ে ৫ হাজারের বেশি, তামিলনাড়ুতে প্রায় ৪ হাজার এবং অন্ধ্রপ্রদেশে ৩ হাজারের বেশি নতুন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

সূত্র: এএনআই

  • সর্বশেষ - আন্তর্জাতিক