ময়মনসিংহ, , ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ অনলাইন সংস্করণ

‘না জেনে সমালোচনা করাটা আমাদের অভ্যাস হয়ে গেছে’

  অনলাইন ডেস্ক

  প্রকাশ : 

‘না জেনে সমালোচনা করাটা আমাদের অভ্যাস হয়ে গেছে’
বলিউড তারকা কিয়ারা আদভানি। ছবি: সংগৃহীত

কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে বলিউড তারকা কিয়ারা আদভানির একটি ছবি। সেখানে দেখা গেছে, তার বুকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গানের লাইনের ট্যাটু করেছেন। সেখানে লেখা ছিল ‘একলা চলো রে’, যদিও তাতে বিকৃত করে কিছু লেখা হয়নি। তবুও সম্প্রতি কিয়ারার এই ট্যাটুই আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে। রবীন্দ্রপ্রেমীরা মূলত জড়িয়েছেন এই সমালোচনায়।

কিয়ারা এই ট্যাটুটি করেছেন তার নেটফ্লিক্সের সিরিজ ‘গিলটি’র জন্য। এই ওয়েব সিরিজে কিয়ারাকে একটি মিউজিক ব্যান্ডের সদস্য হিসেবে দেখা গেছে। এরইমধ্যে নেটফ্লিক্সে অনেকেই এই সিরিজটি দেখেছেন। যে ওয়েব সিরিজের বিষয়বস্তুতে উঠে এসেছে ‘মি টু’। আপাতত এই ওয়েব সিরিজটির গল্প একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘিরে এগিয়ে চলছে। যদিও গিলটির গল্প শেষ পর্যন্ত কোন দিকে এগুবে তা ওয়েব সিরিজটি পুরো দেখার পরই জানা যাবে। তবে আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছে কিয়ারা আদভানির এই ‘একলা চলো রে’ ট্যাটু।

গিলটির পরিচালক রুচি নারেইন কিয়ারার বুকে এই ‘একলা চলো রে’ ট্যাটুটি ব্যবহার করেছেন গল্পের স্বার্থেই। তা অবশ্য ওয়েব সিরিজটি দেখলেই বোঝা যায়। এই ট্যাটু সাময়িকভাবে গল্পের প্রয়োজনেই এঁকেছেন অভিনেত্রী।

কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার পর চটেছেন এই অভিনেত্রী। তিনি বলেন, ‘অভিনয়ের প্রয়োজনে অনেককিছু করার প্রয়োজন হয়। এই সময় এসে একজন দর্শকরা বিষয়টি ভালোভাবে বোঝেন বলে আমার ধারণা ছিল। কিন্তু বুকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গানের অংশ লেখাটা তাকে অশ্রদ্ধা করা, এই বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য খারাপ লেগেছে। না জেনে সমালোচনা করা আমাদের অভ্যাস হয়ে গেছে। শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধার জ্ঞান আমার ও আমাদের রয়েছে।’

  • সর্বশেষ - বিনোদন