, ১০ কার্তিক ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

সেতুতে উঠতে কাঁধে নিতে হয় বাইসাইকেল

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

সেতুতে উঠতে কাঁধে নিতে হয় বাইসাইকেল

সেতু ঠিকই আছে, শুধু দুই পাশে নেই সংযোগ সড়ক। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে মানুষ। বাধ্য হয়ে সেতুতে উঠতে স্বেচ্ছাশ্রমে এলাকাবাসী নির্মাণ করেছে একটি বাঁশের সাঁকো। এই সাঁকো বেয়েই সেতুটি দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে মানুষ।

এমন চিত্র দেখা গেছে ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার কৃষ্ণপুর ঘোঁষগাও এলজিইডি কাঁচাসড়কের লাঙ্গলজোড়া এলাকায়। সেতুটি দিয়ে প্রতিদিন কয়েক গ্রামের মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১০ থেকে ১২ বছর আগে বেসরকারি সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশনের উদ্যোগে সেতুটি নির্মাণ করা হয়। কিন্তু গত জুলাই মাসে পাহাড়ি ঢলে সেতুটির দুই পাশের সংযোগ সড়ক ভেঙে যায়। এতে সাধারণ মানুষের চলাচলে দুর্ভোগ দেখা দেয়। পরে এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশ দিয়ে নিজেরাই সাঁকো তৈরি করেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, পাহাড়ি ঢলে সেতুর সংযোগ সড়ক ভেঙে গেছে কয়েক মাস হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা প্রশাসনের কেউ বিষয়টির খোঁজখবর নেননি।

এ বিষয়ে গামারীতলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খান বলেন, ওই সেতুর সংযোগ সড়ক করার জন্য এখন কোনো বরাদ্দ নেই। বরাদ্দ এলে কাজ করা হবে।

ধোবাউড়া উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, পাহাড়ি ঢলে সেতুটির সংযোগ সড়ক ভেঙে যাওয়ার বিষয়টি শুনেছি। তবে, ওই সেতু সম্পর্কে এ মুহূর্তে আমার হাতে কোনো তথ্য নেই। আগামী সপ্তাহে খোঁজখবর নিয়ে তথ্য দেওয়া যাবে।

এ বিষয়ে ধোবাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রফিকুজ্জামান বলেন, চলতি বছর পাহাড়ি ঢল ও বন্যায় উপজেলার অনেক আঞ্চলিক সড়ক ও সেতুর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এগুলো অচিরেই মেরামত করা হবে।

  • সর্বশেষ - সারাদেশ