, ১০ কার্তিক ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

রূপচর্চায় অলিভ অয়েল

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

  প্রকাশ : 

রূপচর্চায় অলিভ অয়েল

রূপ ধরে রাখতে রূপচর্চার বিকল্প নেই। বয়স যদিও থামিয়ে রাখা যায় না তবে একটু যত্নশীল হলে চেহারায় তারুণ্য ধরে রাখা সহজ হয়ে যায়। আমাদের দেশের নারীরা রূপচর্চায় সচেতন বহুকাল ধরেই। বর্তমানে পুরুষেরাও একটু একটু করে আগ্রহী হতে শুরু করেছেন। যেসব উপাদান এই রূপচর্চার ক্ষেত্রে কাজে লাগে তার মধ্যে অলিভ অয়েল অন্যতম। 

স্বাস্থ্যকর তেল হিসেবে অলিভ অয়েলের পরিচিতি রয়েছে। এটি রান্নার কাজে ব্যবহার করলে উপকার তো মেলেই, সেইসঙ্গে রূপচর্চায়ও সমান কার্যকরী। বিশেষ করে শীতের সময়ে অলিভ অয়েলের বিকল্প ভাবতে পারেন না অনেকেই। এটি শুষ্ক ত্বকে প্রাণ ফেরানো ছাড়াও আরও অনেক উপকার করে থাকে। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক-

অলিভ অয়েল যখন ময়েশ্চারাইজার

ত্বক ভালো রাখতে ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখার বিকল্প নেই। সেজন্য পর্যাপ্ত পানি ও তরল খাবার খাওয়ার পাশাপাশি নিতে হবে ত্বকের যত্নও। এমন উপাদান ব্যবহার করতে হবে যা ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে। সেজন্য গোসলের পানিতে তিন-চার চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে সেই পানিতে গোসল করুন। এতে ত্বক আর্দ্র ও কোমল থাকবে। আলাদা করে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের প্রয়োজন পড়বে না।

অলিভ অয়েল দিয়ে কন্ডিশনার

আপনার চুলের স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য রক্ষা করতে কন্ডিশনারের ব্যবহার কতটা অপরিহার্য তা জানা আছে নিশ্চয়ই। তবে বাইরে থেকে কেনা কেমিক্যালযুক্ত কন্ডিশনারের বদলে ব্যবহার করুন অলিভ অয়েল। চুল কন্ডিশনিংয়ের ক্ষেত্রে এটি বেশ কার্যকরী। কীভাবে ব্যবহার করবেন? প্রথমে আআ কাপ অলিভ অয়েল গরম করে নিতে হবে। এরপর পুরো স্ক্যাল্প ও চুলে ভালোভাবে ঘষে ঘষে লাগিয়ে নিন। অপেক্ষা করুন অন্তত আধা ঘণ্টা। এরপর ভালোভাবে শ্যাম্পু করে নিন। অলিভ অয়েলই কন্ডিশনারের কাজ করবে। আলাদা করে আর কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে না।

শেভিংয়ে অলিভ অয়েল ব্যবহার

শেভিংয়ের পর অনেকের ত্বকের জ্বালাভাব হতে পারে, কারও বা ত্বক লাল হয়ে যায়। এসব সমস্যা এড়াতে ব্যবহার করতে পারেন অলিভ অয়েল। শেভিংয়ের আগে ফোম বা সাবান ব্যবহার না করে মেখে নিন অলিভ অয়েল। এতে ত্বক সুস্থ ও কোমল থাকবে, শেভিং করাও হবে সহজ।

রোদে পোড়া দাগ কমাবে অলিভ অয়েল

রোদ আমাদের শরীরে ভিটামিন ডি এর ঘাটতি পূরণ করে। তাই প্রতিদিন শরীরে রোদ লাগানো জরুরি। কিন্তু অতিরিক্ত রোদ ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এটি ত্বকে পোড়া দাগ সৃষ্টি করে। এই রোদে পোড়া দাগ দূর করতে সাহায্য করে অলিভ অয়েল। সিকি কাপ ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল ও এক কাপ অলিভ অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে রাখুন। এবার সেখান থেকে রোদে পোড়া স্থানে দিনে তিন-চারবার ব্যবহার করুন। এতে ত্বকের পোড়া এবং জ্বালাভাব দুটোই দূর হবে।

অলিভ অয়েলে ঠোঁটের যত্ন

ঠোঁটের মৃত কোষ তুলে ফেলতে লিপ স্ক্রাব করা জরুরি। সেজন্য ব্যবহার করতে পারেন অলিভ অয়েল। এটি ঠোঁট নরম রাখে ও ঠোঁটের মৃত কোষ দূর করে। স্ক্রাব তৈরির জন্য এক চা চামচ অলিভ অয়েল, এক টেবিল চামচ চিনি ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি কিছুক্ষণ ঠোঁটে মাসাজ করে নিন। তবে খুব জোরে মাসাজ করবেন না। হালকা করে ঘষুন। এরপর পরিষ্কার পানিতে ঠোঁট ধুয়ে নিন।

  • সর্বশেষ - লাইফ স্টাইল