, ১৪ মাঘ ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

‘বিএনপি মানুষকে মুখরোচক কথা বলে বিভ্রান্ত করছে’

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

‘বিএনপি মানুষকে মুখরোচক কথা বলে বিভ্রান্ত করছে’

বিএনপি দেশের মানুষকে বিভিন্ন মুখরোচক কথাবার্তার মাধ্যমে বিভ্রান্ত করছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

রোববার (৩ অক্টোবর) রাজধানীর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে আয়োজিত জাতীয় স্যানিটেশন মাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি দেশের মানুষকে এখন স্বর্গের স্বপ্ন দেখাচ্ছে। ক্ষমতায় থাকাকালে দেশকে তারা নরক বানিয়ে রেখেছিল। যারা দীর্ঘ ২১ বছর ক্ষমতায় থেকে আমাদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাতে পারেনি। এখন তারা নতুনভাবে অনেকরকম মুখরোচক কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন। তাদের ভয়ংকর শাসনামল সম্পর্কে দেশের মানুষ ভালোভাবেই অবগত আছে। তাই তাদের মিথ্যা আশ্বাসে বিভ্রান্ত না হয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

তাজুল ইসলাম বলেন, পেশাগতভাবে আমাদের ভিন্নতা থাকতে পারে কিন্তু দিনশেষে সবাই এদেশের মানুষ। দেশটাকে নিয়ে অনেক সময় অনেক ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত হয়েছে এবং এখনো হচ্ছে। তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে এসব অপশক্তির ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হবে।

দেশের ৯৮ শতাংশ মানুষ সুপেয় পানির আওতায় এসেছে উল্লেখ করে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, নিরাপদ পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন সরকারের একটি অগ্রাধিকারমূলক খাত। সবার জন্য নিরাপদ পানি সরবরাহ ও শতভাগ স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ এবং এ লক্ষ্য পূরণে কাজ চলছে। স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে প্রতি ছয় হাজার মানুষের জন্য শেখ হাসিনা কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছেন বলেও জানান তিনি।

তিনি জানান, যেকোনো প্রকল্প গ্রহণ করা হোক না কেন সচেতনতামূলক কার্যক্রম থাকা উচিত। করোনা, ডেঙ্গু, স্যানিটেশনসহ সামাজিক সব সমস্যা সমাধানে মানুষকে সচেতন করার বিকল্প নেই। কমিউনিটিকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক-ছাত্রসহ সব মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে।

মন্ত্রী জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের দায়িত্ব নিয়ে অল্প সময়ের মধ্যেই অভূতপূর্ব উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর শাসনামলে জিডিপির প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৯ শতাংশের বেশি ছিল, যা এখন পর্যন্ত আমরা স্পর্শ করতে পারিনি। দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ করতে হলে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তাহলে আমরা অবশ্যই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও এদেশের মানুষের আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে পারবো।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য এবং বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি মিজ ভিরা মেনডোনকা বিশেষ অতিথি ছিলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, বর্তমানে দেশের স্যানিটেশন ব‍্যবস্থায় দৃশ্যমান উন্নতি হয়েছে। একটি দেশের উন্নতি তখনই হয় যখন দেশের সাধারণ মানুষ সচেতন হয়, দেশের রাজনৈতিক নেতারা সঠিকভাবে পরিচালিত হয়। প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ‍্য নেতৃত্বে জনসাধারণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও স্যানিটেশন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে স্যানিটেশনকে সবসময় সরকার অগ্রাধিকার দিয়ে আসছে। ফলে স্যানিটেশনে দেশের অগ্রগতি দৃশ্যমান।

ডিপিএইচই’র প্রধান প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশীদ খান, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাসহ সরকারি-বেসরকারি ও উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, এ বছর জাতীয় স্যানিটেশন মাসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হলো ‘নিরাপদ স্যানিটেশন নিশ্চিত করি, সুস্থ সবল বাংলাদেশ গড়ি’। স্যানিটেশন মাস উপলক্ষে কেন্দ্রীয়, বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে কর্মশালাসহ নানা ধরনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ - রাজনীতি